পটুয়াখালীতে আরও ১০ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস


ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পটুয়াখালী
ম্যাপ

ম্যাপ

  • Font increase
  • Font Decrease

পটুয়াখালী জেলায় আরও ১০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) দুপুরে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

জেলা প্রশাসক জানান, পটুয়াখালীতে এ পর্যন্ত মোট ২৮২ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এর মধ্যে ১৫৬ জনের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। এতে পটুয়াখালী সদর উপজেলায় একজন, রাঙ্গাবালী উপজেলায় চারজন, দশমিনা উপজেলায় তিনজন এবং দুমকি উপজেলায় দুই জনের করোনা ভাইরাস পজেটিভ এসেছে। এদের মধ্যে দুমকি উপজেলার একজন মারা গেছেন।

গত ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যা থেকে পটুয়াখালী জেলাকে অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। তবে শহরের প্রধান সড়কগুলোতে মানুষের জনসমাগম কম থাকলেও বাজারগুলোতে মানুষের ভিড় দেখা গেছে।

   

শার্শায় পাট বোঝায় ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যান চালক নিহত



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বেনাপোল (যশোর)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

যশোরের শার্শায় পাট বোঝায় ট্রাকের ধাক্কায় আল আমিন (২৫) নামে এক ভ্যান চালক নিহত হয়েছে।

বুধবার (১৯ জুন) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে যশোর-সাতক্ষীরা মহাসড়কে জামতলা মবিল ফ্যাক্টরি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ভ্যানচালক উপজেলার পশ্চিম কোটা (দক্ষিণ পাড়া) গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে আল- আমিন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আলআমিন ভ্যান নিয়ে জামতলা থেকে বাগআঁচড়া বাজারের দিকে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে জামতলা মবিল ফ্যাক্টরি এলাকায় পৌঁছালে একটি পাট বোঝায় ট্রাক তার ভ্যানটিকে ধাক্কা দিলে ভ্যানচালক ভ্যান থেকে পড়ে ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

নাভারন হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ইসলাম জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক ট্রাক জব্দের পাশাপাশি ড্রাইভারকে আটক করা হয়েছে।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

সাপের কামড়ে গৃহবধূর মৃত্যু, আতঙ্ক রাসেলস ভাইপার!



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বরগুনা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বরগুনার আমতলীতে বিষধর সাপের কামড়ে রেজিমোন (৫০) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) সকালে উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের মধ্য আঙ্গুলকাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

রেজিমোন আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের আর্শ্বেদ আলী হাওলাদারের স্ত্রী।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে 'ফজরের নামাজ পড়ার উদ্দেশ্যে বাড়ির পুকুরের ঘাটে ওযু করতে যায়। ওই সময় তার পায়ে সাপে সোবল দেয়। তার ডাকচিৎকারে বাড়িতে থাকা স্বজনরা এগিয়ে এসে দেখতে পায় রেজিমোন মাটিতে গড়াগড়ি খাচ্ছে এবং তার পায়ে সাপে কাটার চিহ্ন রয়েছে। মাত্র ১০ মিনিটের মধ্যে তিনি অজ্ঞান হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। স্বজনরা তাকে তাৎক্ষণিক পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।

নিহতের স্বামী আর্শ্বেদ আলী হাওলাদার বলেন, ফজরের নামাজ পড়ার জন্য আমার স্ত্রী ঘাটে যান ওযু করার জন্য। ওই সময় তাকে সাপে কামড় দেয়। তার ডাক-চিৎকার শুনে আমরা পরিবারের লোকজন ছুটে গিয়ে তাৎক্ষণিক তাকে উদ্ধার করে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। খুব অল্প সময়ে তার মৃত্যু হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে বিষাক্ত রাসেলস ভাইপার সাপে কামড় দিয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, সাপের কামড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে শুনেছি। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হবে।

ওই ঘটনার পর থেকেই গুলিশাখালী ইউনিয়নের সর্বত্র এখন রাসেলস ভাইপার সাপের আতঙ্ক বিরাজ করছে। অতি অল্প সময়ে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হওয়ায় গ্রামবাসীর ধারণা রাসেলস ভাইপার সাপের কামড়েই ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাতের পরে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রকাশ্যে দেখা মিলছে ওই বিষাক্ত রাসেলস ভাইপার সাপের। বিষধর ওই সাপ সম্পর্কে গ্রাম-গঞ্জের মানুষের মধ্যে কোনো ধারণা বা পরিচিতি একেবারেই নেই বললেই চলে।

আঙ্গুলকাটা গ্রামের রিয়াজ উদ্দিন জানান, সাপের কামড়ে এক গৃহবধূর মৃত্যু হওয়ার পর থেকেই ওই গ্রামসহ ইউনিয়নের সর্বত্র এখন রাসেলস ভাইপার সাপের আতঙ্ক বিরাজ করছে। সন্ধ্যার পর গ্রামের লোকজন এখন আর তেমন একটা ঘরের বাইরে থাকেন না। অনেকে হাতে লাঠি নিয়েও রাস্তায় চলাচল করেন।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হাওলাদার বলেন, ওই সময়ে একটু সাপের আতঙ্ক বেশি থাকে, তাই সকলকে সাবধানে চলাফেরা করতে হবে।

তথ্য অনুযায়ী উত্তর এবং উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোতেই ওই সাপের উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছিল। ওই প্রজাতির সাপের সবচেয়ে বেশি উপস্থিতি ছিল রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। তবে বর্তমানে দক্ষিণাঞ্চলের উপকূলীয় এলাকায় ওই প্রজাতির সাপের উপস্থিতি বেড়ে গেছে।

উত্তরবঙ্গে রাসেলস ভাইপার সাপ চন্দ্রবোড়া বা উলুবোড়া নামে পরিচিত।

সাপটির গাঁয়ের রং এবং চিত্রাকৃতির হওয়ায় বেশিরভাগ মানুষ ওটিকে নদীতে বাস করা অথবা অজগর সাপের ছদ্মনাম বলেই জানে। বাংলাদেশে যে সকল সাপ দেখা যায়, সেগুলোর মধ্যে ওটিই সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ।

আফ্রিকা উপমহাদেশ থেকে আসা ওই বিষধর সাপের উপদ্রব এখনই কমানো না গেলে পরে আরও মারাত্মক আকার ধারণ করবে বলে আশঙ্কা করছেন সচেতন মহল।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

১৫ লাখ টাকার ছাগল কাণ্ড

সাদিক এগ্রোর ১৫ লাখ টাকার ছাগল কাণ্ড: কে এই মুশফিক ইফাত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দু’দিন আগে উদযাপিত কোরবানি ঈদে কোটি টাকার গরু ও ১৫ লাখ টাকায় ছাগল বিক্রির ঘটনায় বিতর্কের মুখে পড়ে সাদিক এগ্রো।

কোটি টাকার গরুর ক্রেতার নাম প্রকাশ না পেলেও ছাগলের ক্রেতার পরিচয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করেন নেটিজেনরা। আর এতেই একজন সরকারি কর্মকর্তার ছেলের ১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনায় শুরু হয় বিতর্ক।

জানা যায়, সাদিক এগ্রো থেকে ১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য এবং কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট আপিলাত ট্রাইব্যুনালের প্রেসিডেন্ট মতিউর রহমানের বড় ছেলে মুশফিকুর রহমান ইফাত।

তবে এই বিতর্কে নতুন করে ঘি ঢালেন ইফাতের বাবা মতিউর রহমান নিজেই। তিনি সংবাদমাধ্যমে দাবি করেন, ‘ইফাত’ নামে তার কোনো ছেলে নেই! এমনকী আত্মীয় বা পরিচিতও নয় সে। তার একমাত্র ছেলের নাম তৌফিকুর রহমান।

তিনি আরো দাবি করেন, তার ছবি ও নাম সামাজিকমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় বিব্রত হয়েছেন তিনি। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের সহায়তা চেয়ে আইনি পদক্ষেপে যাচ্ছেন এই সরকারি কর্মকর্তা।

তবে বার্তা২৪.কমের অনুসন্ধানে নিশ্চিত হওয়া গেছে, ছাগল কাণ্ডে আলোচিত মুশফিকুর রহমান ইফাত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য এবং কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট আপিলাত ট্রাইব্যুনালের প্রেসিডেন্ট মতিউর রহমানের বড় ছেলে। ইফাতসহ তিন ভাই-বোন তারা। ইফাত ছাড়াও তার এক ভাই ও এক বোন রয়েছে।

রাজধানীর ধানমণ্ডি ৮ নম্বরে নিজস্ব বাড়ি রয়েছে তাদের। এছাড়া ইফাতের পরিবার রাজধানীর রমনা থানার সেগুনবাগিচা এলাকায় সরকারি বাসায় থাকে। ইফাত নটরডেম কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করেছেন।

ইফাতের পরিবারের সবাই বর্তমানে গা ঢাকা দিয়ে আছেন। ধানমণ্ডির বাড়ি ছেড়ে অন্য কোথাও চলে গেছেন। তাদের সঙ্গে নানাভাবে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।


তবে ইফাতের এক ঘনিষ্ঠ এক স্বজন জানিয়েছেন, সাদিক এগ্রোতে ছাগল কেনার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পরে ইফাত নিজেই পরিবারের তোপের মুখে পড়েন। বিষয়টি নিয়ে নানাভাবে সমালোচনা সৃষ্টি হওয়ায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন তিনি। ঈদের আগে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ইফাত।

ভাইরাল হওয়া ছবি ও ভিডিও’র বিষয়ে ইফাত বার্তা২৪.কমের কাছে দাবি করেন, পূর্ব পরিচিত ইমরানের সাদিক এগ্রোতে কোরবানির পশু দেখতে গিয়েছিলেন তিনি। তখন ইমরান তাকে ক্রেতা সাজিয়ে ছবি তুলতে অনুরোধ করেন। সেই সময়ে তিনি একটি ভিডিওতেও কথা বলেন।

ইফাত বলেন, ‘এই বিষয়টা নিয়ে বাসা থেকে আমাকে অনেক কথা শুনতে হয়েছে। আমার পরিবারকে ছোট হতে হয়েছে। আসলে আমার একটা ভুলের কারণেই এটা হয়েছে’!

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

‘সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য দেশের মঙ্গলের জন্য কাজ করেন’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য দেশের মঙ্গলের জন্য কাজ করেন বলে মন্তব্য করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

বুধবার (১৯ জুন) দুপুরে সাভার সেনানিবাসে বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তিনি একথা বলেন।

সেনাবাহিনী প্রধান আরও বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চাকরি খুব চ্যালেঞ্জিং, দেশের কল্যাণের জন্য সবসময় প্রস্তুত থাকতে হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে আধুনিকায়ন করেছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি (বার), ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি সাভার সেনানিবাসে পৌছে সেনা-সদস্যদের সেনাবাহিনী প্রধান সাভার এরিয়ার সকল পদবীর সেনাসদস্যদের উদ্দেশ্যে বিদায়ী দরবার গ্রহণ করেন এবং মতবিনিময় করেন। পরে ডিওএইচএস এলাকায় তিন কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ মসজিদ উদ্বোধন করেন ও সেখানে বৃক্ষ রোপণ করেন। এরপরে সেনাবাহিনী প্রধানকে নবম পদাতিক ডিভিশনের পক্ষ থেকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এসময় তাকে একটি খোলা জিপে করে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এসময় বিদায়ী অনুষ্ঠানে সেনাসদরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণসহ সাভার সেনানিবাসের সব পদবীর কর্মকর্তাগণ, জেসিও, অন্যান্য পদবীর সেনাসদস্যগণ এবং গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;