ইপিজেড বন্ধ নিয়ে সিদ্ধান্তহীনতা, করোনার ঝুঁকিতে শ্রমিকরা

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস



মাহমুদ আল হাসান রাফিন, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নীলফামারী
নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডের প্রবেশপথ/ছবি: বার্তা২৪.কম

নীলফামারীর উত্তরা ইপিজেডের প্রবেশপথ/ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত সারা পৃথিবী। এ ভাইরাস দমনে এখন পর্যন্ত কোনো ওষুধ আবিষ্কার হয়নি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ মতে আপাতত জনসমাগম এড়িয়ে চলাই এ রোগ প্রতিরোধের উপায়। এতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম। কিন্তু নীলফামারী'র উত্তরা রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলে এর উল্টো চিত্র দেখা গেছে।

বুধবার (২৫ মার্চ) সকালে জেলার সদর উপজেলার সংগলশী ইউনিয়নে অবস্হিত উত্তরা ইপিজেডে গিয়ে দেখা যায় কর্মরত শ্রমিকরা দলবেঁধেই কর্মস্থলে যোগ দিচ্ছেন। কর্তৃপক্ষ থেকে নেওয়া হয়নি সতর্কতামূলক কোনো উদ্যোগ। তাই কপালে চিন্তার ভাঁজ নিয়ে মুখে মাস্ক পরে বাধ্য হয়ে কর্মস্থলে যেতে হচ্ছে তাদের। তাদের এ জনসমাগম থেকে করোনার সংক্রমণ ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

তথ্যমতে, বিদেশ ফেরত সকল প্রবাসী বা নাগরিককে বাড়িতে সঙ্গরোধে রাখা হয়েছে। জনসমাগম এড়াতেই টানা ১০ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ রাখা হয়েছে। জনসমাগম হয় এমন সকল অনু্ষ্ঠানের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। করোনা প্রতিরোধের অংশ হিসেবে সরকার গতকাল মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) থেকে সারাদেশে সেনাবাহিনী মাঠে নামিয়েছে।

ইপিজেডের মূল প্রবেশ পথে  দেখা যায়,  ইপিজেড কেন্দ্রিক গড়ে ওঠা বাজারের দোকানগুলো বন্ধ থাকলেও পূর্বের মতোই নারী-পুরুষ শ্রমিকরা সাইকেল,মোটরসাইকেল ও অটোরিকশা করে দলবেধে আসছেন, ইপিজেডের প্রবেশ করছেন একে অপরের গায়ে ঘেঁষে। ন্যূনতম দূরত্বও বজায় রাখছেন না শ্রমিকরা।

দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার ফারজানা কাজ করেন সেকশন সেভেন কারখানায়। তিনি বলেন, 'শোনা যাচ্ছে সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশে সব কর্মস্থল বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। তবে ফ্যাক্টরি বন্ধ হলে আমাদের অসহায় জীবনযাপন করতে হবে। এজন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা করে আমাদের ফ্যাক্টরি বন্ধ করুক। আমরা যেন খেয়ে থাকতে পারি’।

এভারগ্রীন প্রোডাক্ট বিডি লিমিটেড কোম্পানিতে কাজ করেন সৈয়দপুর উপজেলার ইয়াকুব আলী। তিনি জানান, 'আমরা গরীব মানুষ, পেটের দায়ে চাকরি করছি হঠাৎ করোনা ভাইরাসের মহামারি শুরু হওয়ায় বেশ চিন্তায় আছি। ছুটি না দিলে কিছু করার নেই।'

নীলফামারী সদর উপজেলার হাজারী হাট এলাকার আদর ইসলাম কাজ করেন ইপিজেডের উত্তরা সোয়েটার কারখানায়।করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে  তিনি বলেন,'পেটের দায়ে এখনও কাজ করছি,  তবে যত তাড়াতাড়ি বন্ধ করা যায় ততই ভালো।'

শিল্প-কারখানা বন্ধে সরকারি কোন সিদ্ধান্ত হয়নি জানিয়ে উত্তরা ইপিজেডের মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ এনামুল হক বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'এই মুহূর্তে প্রতিষ্ঠানগুলো পুরোপুরি বন্ধের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্তহীনতা রয়েছে। কয়েকটি প্রতিষ্ঠান লে-অফ (শ্রম আইন অনুযায়ী অর্ধেক বেতন অগ্রিম প্রদান করা সাপেক্ষে শ্রমিকদের ছুটি প্রদান) করার পরিকল্পনা করছে। কোন কোন প্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে চালু রাখার পরিকল্পনায় আছে।'

দলবেঁধে কাজে যোগ দিচ্ছেন শ্রমিকরা

তিনি জানান, 'শ্রম আইন অনুযায়ী নো ওয়ার্ক নো পে'র সুযোগ নেই, শ্রমিকদের ছুটি দিয়ে বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো এতো বেতন দেবে কেমন করে। প্রোডাকশন নাই, কাঁচামাল নাই এগুলো নিয়েই প্রতিষ্ঠানগুলো চিন্তিত।'

নীলফামারী জেলার সিভিল সার্জন রণজিৎ কুমার বর্মণ বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'উত্তরা ইপিজেড নিয়ে একটু বেশিই চিন্তিত কারণ এখানে যারা বিদেশ থেকে আসে তারা হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলে না, আমাদের সাথে যোগাযোগও করছে না। বিদেশি বিশেষত চীনের নাগরিকদের তথ্য চেয়ে বিভিন্ন সময়ে আমি এবং আমার স্টাফদের মাধ্যমে তথ্য নেওয়ার চেষ্টা করেছি। তারা কো-অপারেট করে নি। এখন যোগাযোগ হচ্ছে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে।'

সিভিল সার্জন জানান, 'সর্বশেষ যে ১৫ জন চীনা নাগরিক এসেছে। তার ১৪ জন কোয়ারেন্টাইন শেষ করেছে। এখনও একজন কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

নীলফামারী জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নীলফামারীতে উত্তরা ইপিজেড স্হাপনের পর এই অঞ্চলের মঙ্গা দূরীকরণে এবং নারীর ক্ষমতায়নে বিশেষ সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। কিন্তু বর্তমান বিশ্ব স্বাস্থ্য পরিস্থিতির দিকে লক্ষ্য রেখে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে উত্তরা ইপিজেডের ৩৫ হাজার শ্রমিক তথা নীলফামারীকে রক্ষা করতে ইপিজেড বন্ধ রাখা কিংবা সীমিত আকারে পরিচালনা করা  উচিত।'

স্বাস্থ্য বিভাগের রংপুর বিভাগীয় পরিচালক ডাঃ আমিন আহমেদ খান জানায়, 'আমরা বলছি পাশাপাশি দুজন থাকলে ৩ ফিট দূরত্বে থাকতে হবে। একসাথে অনেক লোক কাজ করছে, দূরত্ব মেইন্টেইন করছে কিনা, তাছাড়াও ওখানে বিদেশিরা কাজ করছে,  তারা ঠিকমতো কোয়ারেন্টাইন মানছেন কি না সবমিলেই উত্তরা ইপিজেডের শ্রমিকরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন।'

জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরী  জানান, 'এ বিষয়ে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে গতকাল মঙ্গলবার মন্ত্রী পরিষদকে অবগত করা হয়েছে। যেকোন মুহূর্তে সিদ্ধান্ত আসবে।'

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে ২১৩ একর জমিতে প্রতিষ্ঠিত উত্তরা ইপিজেডে দেশী-বিদেশি ১৮ টি কোম্পানিতে প্রায় ৩৪ হাজার শ্রমিক কাজ করেছেন। করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের  নিয়ন্ত্রিত চারটি কোম্পানির প্রায় ২৫ হাজার শ্রমিক কাজ করেন। এভারগ্রীন প্রডাক্ট ফ্যাক্টরী বিডি লিঃ, ম্যাজেন বিডি লিঃ, সনিক বাংলাদেশ লিঃ ও ভ্যানচুরা লেদার অয়্যার বিডি লিঃ এ চার কোম্পানিতে কাজ করেন  ৪২৬ জন চীনা নাগরিক।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

গড়াই নদীতে ডুবে যুবকের মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি প্রতীকী

ছবি প্রতীকী

  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়ার খোকসায় গড়াই নদীতে ডুবে সুমন (২০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (৫ এপ্রিল) বিকেলে খোকসা উপজেলার গনেশপুর অংশে গড়াই নদী থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত সুমন কুমারখালী উপজেলার রাজাপুর গ্রামের নিজাম উদ্দিনের ছেলে।

খোকসা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ফায়ারম্যান হাবিবুর রহমান জানান, সকালের দিকে গড়াই নদীতে মাছ ধরতে যান সুমন। মাছ ধরার এক পর্যায়ে নদীতে ডুবে যান তিনি। বিকেলের দিকে স্থানীয়দের সহায়তায় তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে বজ্রপাতে কিশোরের মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুমিল্লা
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে সাফায়েত হোসেন (১৯) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় সালাউদ্দিন (২২) নামের আরেক যুবক গুরুতর আহত হন।

রোববার (৫ এপ্রিল) এই বিকেলে এই ঘটনা ঘটে। তাদের উদ্ধার করে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে লাকসামের একটি ক্লিনিকে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই কিশোরকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার আদ্রা দক্ষিণ ইউনিয়নের আটিয়াবাড়ি দক্ষিণপাড়া স্কুল বাড়ির আবদুল আউয়ালের ছেলে সাফায়াত হোসেন এদিন বিকেলে সহপাঠীদের সাথে পার্শ্ববর্তী ঘোড়াময়দান গ্রামের একটি মাঠে ফুটবল খেলতে যায়। বিকাল ৫টার দিকে খেলা চলা অবস্থায় আকস্মিক বজ্রপাতে সাফায়েতের পুরো শরীর ঝলসে যায়। তাৎক্ষনিকভাবে তাকে উদ্ধার করে লাকসামের একটি ক্লিনিকে নেয়া হলে সন্ধ্যায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া বজ্রপাতে ওই ঘোড়াময়দান গ্রামের নুরুল হকের ছেলে সালাউদ্দিন (২২) গুরুতর আহত হয়ে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল ওহাব ঘটনার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

লক্ষ্মী ভাইয়েরা বাসায় যান, নিজেসহ দেশকে বাঁচান



নাহিদ রেজা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঠাকুরগাঁও
ওসি তানভিরুল ইসলাম।

ওসি তানভিরুল ইসলাম।

  • Font increase
  • Font Decrease

আমার লক্ষ্মী ভাইয়েরা দয়া করে বাইরে ঘোরাঘুরি না করে বাসায় যান। নিজে বাঁচেন, পরিবারকে বাঁচান, দেশকে বাঁচান। সচেতন হোন।

ঠিক এসব কথা বলে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভিরুল ইসলাম। মাঠ পর্যায়ে গিয়ে এভাবে সচেতন করায় সাধুবাদ জানিয়েছে সাধারণ মানুষ।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘আমি ওষুধ কেনার জন্য স্থানীয় বাজারে এসেছিলাম। কিছুক্ষণ পর থানার একটি গাড়ি বাজারের সামনে এসে দাঁড়ায় এবং ওসি তানভিরুল সবাইকে বাসায় থাকার জন্য অনুরোধ করেন। এর আগে কখনো জনগণের সঙ্গে পুলিশের এমন ভালো আচরণ দেখি নাই।’

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চৌড়াস্তা মোড়ে কথা হয় জয়নাল নামে এক পথচারীর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমাদের জেলার পুলিশ সাধারণ জনগণের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করছে। তাদের ভাই বলে বাসায় ফিরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করছে। ওসিসহ পুলিশের সদস্যরা নিজেদের কথা চিন্তা না করে আমাদের জন্য এ কাজটি করে যাচ্ছেন। তাদের ধন্যবাদ জানাই।’

স্থানীয় সাহাদত হোসেন নামে একজন বলেন,‘তানভিরুল ভাই একজন মানবিক পুলিশ অফিসার। তার জন্য শুভকামনা ও দোয়া রইল।’

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভিরুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। এ ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। সরকার যেসব দিক নির্দেশনা দিয়েছে সেগুলো মেনে চলতে হবে। জনগণের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার না করে তাদের সচেতন করা হচ্ছে। এতে কাজও হচ্ছে।’

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;

ডিবি পরিচয়ে মোবাইল ছিনতাই, যুবক গ্রেফতার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নীলফামারী
গ্রেফতার আবেদ আলী।

গ্রেফতার আবেদ আলী।

  • Font increase
  • Font Decrease

নীলফামারীতে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) উপপরিদর্শক পরিচয়ে মোবাইল ছিনতাই করার অপরাধে আবেদ আলী (২৮) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (৫ এপ্রিল) বিকেলে নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমিনুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আবেদ আলী সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের চওড়া গ্রামের খয়রাত হোসেনের ছেলে।

জানা গেছে, শনিবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে জেলা সদরের কুন্দপুকুর ইউনিয়নের আঙ্গারপাড়া গ্রামে মোকছেদুল ইসলামসহ কয়েক যুবক মোবাইলে ভিডিও গেম খেলছিলেন। এ সময় আবেদ আলী নিজেকে সৈয়দপুর থানার ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক পরিচয় দিয়ে ওই যুবকদের কাছ থেকে মোবাইলটি নিয়ে যান। পরে এ বিষয়ে মোবাইলের মালিক মোকছেদুল ইসলাম সদর থানায় অভিযোগ করেন।

এরপর রোববার ভোরে আবেদ আলীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ওই সময় তার কাছ থেকে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত একটি খেলনা পিস্তল ও ওয়্যারলেস সেট, একাধিক মোবাইল সিম এবং দুটি পরিচয়পত্র জব্দ করে পুলিশ।

নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মমিনুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ডিবি পুলিশের ভুয়া পরিচয়ে মোবাইল ছিনতাই করার সত্যতা স্বীকার করেছেন আবেদ আলী। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার পর আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস

;