আবার সরব উত্তর আধুনিক সাহিত্য আন্দোলন



কনক জ্যোতি, কন্ট্রিবিউটিং করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
উত্তর আধুনিক সাহিত্য আড্ডায় কবি মাহফুজ পারভেজ এর "মানব বংশের অলংকার"। বার্তা২৪.কম

উত্তর আধুনিক সাহিত্য আড্ডায় কবি মাহফুজ পারভেজ এর "মানব বংশের অলংকার"। বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

খরবটি পাওয়া গেলো মালয়েশিয়া প্রবাসী 'লাল ফকিরের মাজার' কাব্যগ্রন্থ খ্যাত নব্বুই দশকের কবি ইশারফ হোসেনের কাছ থেকে। উত্তর আধুনিক কাব্য ঘরানার কবি-লেখকগণ আবার সাহিত্যচর্চার আনুষ্ঠানিক বিন্যাস রচনা করেছেন করোনাকালের বিরূপতা পেরিয়ে।

নব্বই এর দশকে উত্তর আধুনিক বাংলা সাহিত্য আন্দোলনকে কেন্দ্র করে রাজধানী ঢাকার শাহবাগ আজিজ সুপার মার্কেট এর টরেন্ট চত্তরে আয়োজিত বিষ্যুদবারের আড্ডার স্মৃতি নিয়ে উত্তর আধুনিক বাংলা সাহিত্যের ছোট কাগজ "সড়ক" এবং "তেজখালি" এর আয়োজনে শিকড়ায়ন বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় গত ২৬ অক্টোবর ২০২১ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় রাজধানীর কাটাবনে অবস্থিত কবিতা ক্যাফেতে আয়োজিত হয় "মঙ্গলবারের  সাহিত্য আড্ডা"।

প্রথম বারের মত আয়োজিত মঙ্গলবারের সাহিত্য আড্ডার প্রধান আলোচনার বিষয় ছিলো  বাংলা কবিতার মূলধারার আধ্যাত্মিক নান্দনিকতার শৈল্পিক কবি সৈয়দ তারিক এর 'আমার ফকিরি' কাব্য গ্রন্থ নিয়ে আলোচনা। আড্ডার প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি সৈয়দ তারিক,  আরও উপস্থিত ছিলেন কবি কামরুজ্জামান স্বপন, কবি জহির আহমেদ, কবি বোরহান উদ্দিন ইউসুফ, কবি নাহিদা আশরাফী, লেখক আব্দুল কাদের জিলানী, হাসান রুহুল, ইয়াসিন মিসবাহ, মাকামে মাহমুদ, শাহানা বেগম, তৌহিদা মাহমুদ  সহ অনেকেই।

সৈয়দ তারিক  তার 'আমার ফকিরি' কাব্যগ্রন্থ নিয়ে আলোচনার শুরুতে তার কাব্যগ্রন্থটি লেখার প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন। তিনি জানান ছোটবেলা থেকেই বইপড়া, শিল্প সাহিত্য ও লেখা নিয়ে তার আগ্রহের কথা।  তিনি উল্লেখ করেন তার জীবনের একটা সময় নাস্তিকতাবাদী মনোভাবে তাড়িত হয়ে মাদকের সাথে জড়িয়ে পড়েন। দীর্ঘদিন লেখালেখিতেও বিরতি নেন।  পরবর্তীতে তিনি একজন ধর্মীয় এবং আধ্যাত্মিক গুরুর সান্নিধ্যে এসে জগৎ-সংসারের প্রকৃতরূপ ও সৃষ্টিকর্তা সম্পর্কে জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে নাস্তিকতাবাদীরে মনোভাব থেকে বেরিয়ে আসেন। সুফিবাদের সাথে সংযুক্ত হন। তার গুরু এবং সুফিবাদ ও সৃষ্টিকর্তা সম্পর্কিত অর্জিত জ্ঞান থেকেই তিনি 'আমার ফকিরি' কাব্যগ্রন্থটি রচনা করেন।

উত্তর আধুনিক বাংলা সাহিত্য আন্দোলন সম্পর্কে তিনি বলেন, খাঁটি বাংলা সাহিত্যের যে শিকড় এবং প্রকৃত বাংলা সাহিত্যকে টিকিয়ে রাখার যে আন্দোলন, তা-ই উত্তর আধুনিক সাহিত্য আন্দোলন, যা ৯০ দশকে গুরুত্বপূর্ণ রূপ ধারন করে। এসময় তিনি শাহবাগের টরেন্ট চত্তরে আয়োজিত বিষুদবারের আড্ডা সহ দেশে বিভিন্ন স্থানে আয়োজিত আড্ডার কথা উল্লেখ করেন এবং উত্তর আধুনিক সাহিত্য আন্দোলন এর প্রেক্ষাপট ও গুরুত্ব তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন "সড়ক" এর সম্পাদক নোমান প্রধান, কবিতা পাঠ করেন আব্দুল কাদের জিলানী। আড্ডা শেষে আশি দশকের শক্তিমান কবি মাহফুজ পারভেজ এর "মানব বংশের অলংকার", কবি হাসান রোবায়েত এর "মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম" কাব্য গ্রন্থ,   লেখক আসিফ আল নূর সম্পাদিত  "হাওর" ম্যাগাজিন অতিথিবৃন্দ কে শিকড়ায়ন বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে সৌজন্য উপহার হিসেবে দেওয়া হয়।