শিশুদের সারপ্রাইজ দিলেন সালমান, গাইলেন আতিক



বিনোদন রিপোর্ট, বার্তা ২৪.কম
শিশুদের সঙ্গে অতিথিরা

শিশুদের সঙ্গে অতিথিরা

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীতে চলমান ‘লাল সবুজের মহোৎসব’-এর উদ্বোধনী দিনে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের সঙ্গে ‘যদি রাত পোহালে গানে’ কণ্ঠ মিলিয়েছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। অনুষ্ঠান শেষেও শিল্পীদের সঙ্গে গাইতে দেখা যায় তাকে। এবার উৎসবের দ্বিতীয় দিনে শিশুদের জন্য গাইলেন এই মেয়র। স্পন্দন ব্যান্ডের সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়ে মেয়র আতিক গাইলেন আজম খানের গান ‘এত সুন্দর দুনিয়ায়’।

সঙ্গীতপাগল এই মেয়রের কাণ্ড দেখে গ্যালারিতে হাজার হাজার শিশু উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়ে। অন্যদিকে, উৎসবের পৃষ্ঠপোষক প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান কয়েক হাজার শিশুর মাঝে উপহার পৌঁছে দেন। আগত শিশুরা হঠাৎ ‘সারপ্রাইজ’ হিসেবে ব্যাগ ভর্তি নানা রঙের উপহার পেয়ে খুশীতে ফেটে পড়ে। পরবর্তীতে কয়েকজন শিশুর হাতে উপহার তুলে দেন সালমান এফ রহমান নিজেই।


তবে, এর আগে শিশু-কিশোরদের পরিবেশনায় নৃত্য, গানে মনোমুগ্ধকর পরিবেশনায় উদযাপিত হয় সন্ধ্যাটি। পরিবেশনার পাশাপাশি দর্শক-শোতাও ছিলো শিশুরাই। আর এভাবেই বর্ণিল রূপ পেল স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে হাতিরঝিলের অ্যামফিথিয়েটারে চলমান ‘বিজয়ের ৫০ বছর : লাল সবুজের মহোৎসব’ শীর্ষক অনুষ্ঠান।

বৃহস্পতিবার ছিল এফবিসিসিআই আয়োজিত এই অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন। শিশুদের অংশগ্রহণে নানা পরিবেশনার শিশুদের পরিবেশনা শেষে সঙ্গীত পরিবেশন করে ব্যান্ডদল স্পন্দন ও ধ্রুবতারা।

এতে নগরীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সমবেত শিশুরা অংশ নেয়। বাংলার ষড়ঋতুসহ দেশাত্মবোধক সঙ্গীত পরিবেশন গেন্ডারিয়া কিশালয় কচিকাঁচার মেলার শত শিশু শিল্পী।


প্রায় এক ঘন্টার নাচ-গানের পরিবেশনায় মাতিয়ে রাখে তারা। শুরুতেই সম্মেলক কণ্ঠে তারা গেয়ে শোনায়- জয় বাংলা বাংলার জয়/হবে হবে নিশ্চয়/কোটি প্রাণ একসাথে জেগেছে অন্ধরাতে/জেগে ওঠার এই তো সময় ...।

এই সুরের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নাচ করে আরেক দল। নেপথ্যে উচ্চারিত হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক সাতই মার্চের ভাষণসহ স্বাধীনতা সংগ্রামের নানা অধ্যায়। পরের পরিবেশনার শিরোনাম ছিল ‘গ্রীস্ম বর্ষা শরৎ হেমন্ত শীত বসন্ত’।

এই গানের সুরে নৃত্যশিল্পীরা ফুল, পাখির সঙ্গে ছাতা মেলে নাচ করে। এভাবেই পুরো আয়োজনটি এগিয়ে চলে নৃত্য-গীতের সম্মিলনে। ষড়ঋতুনির্ভর পরিবেশনার মাঝে বয়ে যায় মেঘ, বৃষ্টি, ঝড়। মনোমুগ্ধকর নাচের সঙ্গে ব্যাকড্রপ স্ক্রিনের আকাশে ভেসে বেড়ায় শরতের নীলাকাশ। দুলতে থাকে শ্বেতশুভ্র কাশফুল।


এভাবেই নানা অনুষঙ্গের আশ্রয়ে প্রতিটি ঋতুই উঠে অনিন্দ্য সুন্দর উপস্থাপনায়। তাদের সেই পরিবেশনায় মুগ্ধতার প্রতিচ্ছবি হিসেবে দর্শকসারি থেকে বারংবার ঝরে পড়ে করতালি। গ্যালারিজুড়ে ছড়িয়ে ছিল জাগো ফাউন্ডেশনের এক হাজার শিশু-কিশোর শ্রোতা-দর্শক।

এদিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন প্র্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন এফবিসিসিআই সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্য দেন এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি মাহবুবুর রহমান।


দর্শকসারিতে উপস্থিত শিশুদের উদ্দেশ্যে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, তোমরা আনন্দ নিয়ে পড়াশোনা করবে। পড়াশোনার পাশাপাশি গান শিখবে, কবিতা আবৃত্তি করবে, বিতর্ক করবে। তোমদেরকে আনন্দ নিয়ে পড়াশোনার করার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার এই বক্তব্যে শিশু-কিশোররা করতালি দিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে।

সালমান এফ রহমান বলেন, বিজয়ের ৫০ বছর আমাদের কাছে বিশেষ গুরুত্ববহ। কারণ, এই দেশ স্বাধীন না হলে আজ আমরা কেউ প্রতিষ্ঠিত হতে পারতাম না। ব্যবসায়ী কিংবা অন্য কোনো পরিচয়ও আমাদের হতো না। তাই আমাদের জাতীয় জীবনে এইসময়টি আর আসবে না। সে কারণেই আমরা সিদ্ধান্ত নেই বিজয়ের মাসের শুরু থেকে ১৬ তারিখ পর্যন্ত আমাদের এই বিজয় উদযাপন করবো।

এদিনের পরিবেশনা পর্বে উপস্থাপিত আরো কয়েকটি গানের শিরোনাম ছিল- ‘পৌষ তোদের ডাক দিয়েছে/আয় রে আয় আয়’, ‘বাজেরে বাজে ঢাক/এলো বৈশাখ’, ‘শিউলিতলায় ভোরবেলায় পুষ্প কুড়ায় পল্লী বালা’, ‘আমার মাইজা ভাই সাইজা ভাই কই গেলারে’


আগামী ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস পর্যন্ত চলবে এই আয়োজন।

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে শুরু হবে অনুষ্ঠান। আজ শুক্রবার তৃতীয় দিনের আয়োজনে পরিবেশিত হবে নারীদের বিশেষ অনুষ্ঠান।

সমাপ্তিহীন সম্পর্কে জোভান-মেহজাবীন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা ২৪.কম
জোভান ও মেহজাবীন

জোভান ও মেহজাবীন

  • Font increase
  • Font Decrease

একটা সময় যাকে ছাড়া একটা দিনও কাটাতে পারবেন না বলে মনে হয়, বিচ্ছেদের ছ’মাস পেরুতেই তার মোবাইল নাম্বার ভুলে যাবেন, বছর যেতে ঠিকানা ভুলে যাবেন, হয়তো নামও ভুলে যাবেন একদিন!

যদি এসবের উল্টো হয় তবে বুঝে নেবেন সে আপনাকে প্রচণ্ড ভালোবেসেছিল, অথবা আপনি। এমনই এক সম্পর্কের রেশ নিয়ে ঈদের বিশেষ নাটক নির্মাণ করলেন মিজানুর রহমান আরিয়ান। সিএমভি’র ব্যানারে নির্মিত এই নাটকটির নাম ‘ব্যবধান’। নির্মাতার সঙ্গে নাটকটির গল্প যৌথভাবে লিখেছেন সোহাইল রহমান।

এর প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করেছেন জোভান ও মেহজাবীন চৌধুরী।

নাটকটির গল্প প্রসঙ্গে আরিয়ান বলেন, ‘‘কিছু কিছু সম্পর্কের কোনও সমাপ্তি থাকে না। এর মানে এই নয় যে সম্পর্কটা শেষ। বরং এর মানে সম্পর্কটির আসলে কোনও শেষ নেই। গল্পটি ভিন্ন ধারার দু’জন মানুষের ভালোবাসা নিয়ে। কিন্তু সেই ভালোবাসার পরিণতি জানতে হলে দেখতে হবে ‘ব্যবধান’।’’

প্রযোজক এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, ‘ব্যবধান’ উন্মুক্ত হচ্ছে আসছে ঈদে সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে।

;

সিনেমায় গায়িকা লুইপা



কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, বার্তা২৪.কম
গায়িকা লুইপা

গায়িকা লুইপা

  • Font increase
  • Font Decrease

সময়ের সুকণ্ঠী গায়িকা জিনিয়া জাফরিন লুইপা। ২০১০ সালের ‘সেরাকণ্ঠ’ প্রতিযোগিতা থেকে উঠে আসা এই শিল্পী অডিও অঙ্গনে এরইমধ্যে বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন। একমাত্র একক অ্যালবাম ‘ছায়াবাজি’র পাশাপাশি উপহার দিয়েছেন ‘জেন্টলম্যান’, ‘এই দেখা শেষ দেখা’, ‘নাচ ময়ূরী নাচ’সহ কয়েকটি আলোচিত গান। স্টেজেও দারুণ ব্যস্ত সময় পার করছেন।

এবার লুইপার অভিষেক হতে যাচ্ছে বড় পর্দায়। প্রথমবারের মতো কোনো সিনেমার গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। রায়হান রাফি পরিচালিত এই সিনেমার নাম ‘পরাণ’। এতে লুইপার গাওয়া গানটির সম্ভাব্য শিরোনাম ‘ধীরে ধীরে’। প্রেমময় এই গানটির কথা লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন। সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন ইমন চৌধুরী। লুইপার সঙ্গে গানটিতে দ্বৈত কণ্ঠও দিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, পর্দার গানটির সঙ্গে পারফর্ম করবেন নায়িকা বিদ্যা সিনহা মিম ও নায়ক ইয়াশ রোহান।

গানটি প্রসঙ্গে লুইপা বলেন, ‘সব শিল্পীরই ইচ্ছা থাকে সিনেমার গাওয়ার। চেয়েছিলাম মনের মতো একটি গান দিয়ে এই মাধ্যমে যাত্রা শুরু করতে। অবশেষে সেটি হলো। এই গানে শ্রোতারা প্রাণ পাবেন, শুনে শান্তি লাগবে এটা বলতে পারি। গানটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সিনেমায় গানটি উপভোগ করার অপেক্ষায় রইলাম।’

উল্লেখ্য, আসছে কোরবানির ঈদ উপলক্ষে মুক্তি পাওয়ার কথা রায়হান রাফি পরিচালিত ‘পরাণ’। তার আগেই ইউটিউবে লুইপা-ইমনের গানটি উন্মুক্ত করা হবে। মিম-ইয়াশ রোহান ছাড়াও সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন শরীফুল রাজ। এরইমধ্যে সিনেমাটির টিজার ও লুক দর্শকের নজর কেড়েছে।

;

স্পেনে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেলেন বাঁধন



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

স্পেনের ‘ভ্যালেন্সিয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব চলছে। সেখানে সিনেমা জোভ’-এ সেরা চলচ্চিত্র নির্বাচিত হয়েছে আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ নির্মিত ‘রেহানা মরিয়ম নূর’। সেই সাথে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নিয়েছেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন ।

শনিবার (২ জুলাই) শেষ হয়েছে উৎসবটির এবারের আসর। উৎসবের সেষ দিনে দিনে ঘোষণা করা হয় বিজয়ীদের নাম। ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমায় অনবদ্য অভিনয়ের জন্য এবার সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন বাঁধন। এছাড়া উৎসবে সেরা চলচ্চিত্র হিসেবেও পুরস্কৃত হয়েছে আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ পরিচালিত এই সিনেমা।

পুরস্কার প্রাপ্তির খবর বাঁধন নিজেই জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তিনি লিখেছেন, ‘সিনেমা জোভ-এ আমরা দুটি পুরস্কার পেয়েছি। এটা সত্যিই অনেক বড় সম্মান। ধন্যবাদ সিনেমা জোভ ও সম্মানিত জুরি বোর্ড আমাদের পুরস্কৃত করার জন্য। এটা আমাদের অনুপ্রেরণা জোগাবে।’

এর আগেও ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমার জন্য এর আগেও একাধিক পুরস্কার পেয়েছেন বাঁধন। অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত ‘এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ডস’-এ সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন। এছাড়াও কেরালার চলচ্চিত্র উৎসবে পেয়েছেন বিশেষ সম্মান।

কান চলচ্চিত্র উৎসবে মনোনয়ন পেয়েছিল ‘রেহান মরিয়ম নূর’। কান প্রিমিয়ারে প্রশংসাও পেয়েছিল সিনেমাটি।

উল্লেখ্য, ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমায় বাঁধন ছাড়াও অভিনয় করেছেন সাবেরী আলম, আফিয়া জাহিন জায়মা, আফিয়া তাবাসসুম বর্ণ, কাজী সামি হাসান, ইয়াছির আল হক, জোপারি লুই, ফারজানা বীথি, জাহেদ চৌধুরী মিঠু, খুশিয়ারা খুশবু অনি ও অভ্রদিত চৌধুরী।

;

মাধবনের ‘রকেট্রি’ দিয়ে বড় পর্দায় ফিরলেন শাহরুখ



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মাধবনের ‘রকেট্রি’ দিয়ে বড় পর্দায় ফিরলেন শাহরুখ

মাধবনের ‘রকেট্রি’ দিয়ে বড় পর্দায় ফিরলেন শাহরুখ

  • Font increase
  • Font Decrease

‘রকেট্রি: দ্য নাম্বি এফেক্ট’ সিনেমার মাধ্যমেই পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেন আর মাধবন। এই ছবিতে কেমিও চরিত্রে অভিনয় করেছেন সুপারস্টার শাহরুখ খান। রকেট বিজ্ঞানী নামবি নারায়ণের চরিত্রে অভিনয় করেছেন মাধবন।

ছবিটি তামিল, হিন্দি, ইংরেজিতে মুক্তি পেয়েছে। শাহরুখের চরিত্র এক সাংবাদিকের, যে সাক্ষাৎকার নেবে নামবির। চার বছর পর বড় পর্দায় ফিরলেন শাহরুখ। 

শাহরুখ ভক্তদের দাবি- ‘রকেট্রি’তে শাহরুখের চরিত্র ছোট হলেও, খুব প্রভাবশালী। এক ভক্ত লিখেছেন, ‘শাহরুখ খান থাকা মানেই যে কোনও কিছুর গুরুত্ব ১০০ শতাংশ বেড়ে যাওয়া। বড় পর্দায় ফেরত আসতে দেখে খুব খুশি। কতক্ষণের জন্য তাতে কিছু যায় আসে না।’

রকেট্রি-তে শাহরুখ খানের লুকের সঙ্গে মিল রয়েছে ‘চাক দে’-র ‘কবীর খান’-এর লুকের। শাহরুখের এই চরিত্রটাও দর্শকদের খুব কাছের। এক ভক্ত টুইট করেছেন, ‘মনে হচ্ছে এত বছর পর ফের কবীরকেই দেখছি’। অনেকে মনে করছেন ‘পাঠান’ লুকের সঙ্গে মিল রয়েছে শাহরুখের এই চরিত্রটার। যা দেখে বোঝাই যাচ্ছে ‘পাঠান’ ছবির শুটিং সময়েই ‘রকেট্রি’র শুটিং করেছেন তিনি।


২০১৮ সালে শাহরুখের জিরো ছবিতে কেমিও করেছিলেন মাধবন। আর তখনই এই সিনেমার গল্প শুনিয়েছিলেন শাহরুখকে। শুনেই পছন্দ হয়ে যায় বাদশার। এমনকী, নিজের জন্মদিনের পার্টিতেও মাধবনকে বলেছিলেন, ‘ম্যাডি আমি তোমার ছবিতে কিন্তু কাজ করতে চাই। আমাকে জানিও কখন কী হচ্ছে।’

;