আমি বড় কোনো শিল্পী নই, তবু্ও সাপোর্ট পাচ্ছি: ফারহান



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মুশফিক আর ফারহান

মুশফিক আর ফারহান

  • Font increase
  • Font Decrease

গেল কয়েক বছরে নিজের অনবদ্য অভিনয় দিয়ে নাট্যাঙ্গনে এসেছেন আলোচনায় এসেছেন যিনি তিনি মুশফিক আর ফারহান। বছরজুড়েই গল্প নির্ভর নাটকে তার দেখা মিলে। এবার ঈদেও ফারহান অভিনীত সাতটি নাটক প্রচার হয়েছে টেলিভিশন এবং ইউটিউবে। যা প্রশংসা পাচ্ছে অন্তর্জালে আর এগিয়ে আছে ইউটিউব ভিউয়ে।

এবারের ঈদের কাজ প্রসঙ্গে ফারহানের ভাষ্য, ‘এবারের নাটকগুলোতে গল্প ও আমার চরিত্র ভিন্নধর্মী ছিল। লোকেশনে ভেরিয়েশন ছিল। প্রতিটা কাজ সময় নিয়ে খুব যত্নসহকারে করার চেষ্টা করেছি। যে সাতটা নাটক করেছি কোনোটাই আরামদায়ক কাজ ছিল না। প্রত্যেকটা কাজই কষ্ট করে করতে হয়েছে। চরিত্র নিয়ে গবেষণা করেছি। বিহাইন দ্য স্টোরি ছিল খুবই প্যাথেটিক।’

এই যেমন মুশফিক আর ফারহানের ‘হাঙর’ নাটকের শুট হয়েছে কক্সবাজারে। এই নাটক প্রসঙ্গে অভিনেতার ভাষ্য, ‘গরমের দিনে শুটকি পল্লিতে শুট করাটা খুবই টাফ ছিল। একটা দৃশ্য তো খুবই চ্যালেন্জিং ছিল আমার জন্য। সাগরের একটা জায়গায় গিয়ে লাফ দিতে হয়। সমুদ্রের ভেতর একা লাফ দেয়া তো ভয়ংকর বিষয়।’

ফারহান আরও যুক্ত করেছেন, “ঈদের ‘ভুলনা আমায়’র শুটিং হয়েছে বাগেরহাটে। একবারে ধান খেতের ভেতর একটা শট ছিল। মারা যাওয়ার পর যেখানে আমাকে রেখে যায়। ধান খেতের পাশে কাঁদাতে শুয়ে থাকতে হয়েছে। ‘নসিব’ এ পুতুলের ড্রেস পরে ডান্স করতে হয়। ওই সময় প্রচুর রোদ ছিল। প্রচুর গরমের মধ্যে ওই ড্রেস পরে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত টানা শট দিযে গিয়েছি।”

তবে এসব কষ্ট স্বার্থক হয়েছে বলে মনে করেন মুশফিক আর ফারহান। বলছিলেন, ‘সব মিলিয়ে যে পরিবেশটা আমরা ফেস করেছি সেটা রেগুলার এগুলোতে ইউসড টু না। অনেক কষ্ট হইছে। হার্ডওয়ার্ক করতে হয়েছে। কষ্টটাকে কষ্ট মনে হয়নি যখন দর্শক কাজগুলেকে দর্শক ভালোবেসেছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে যখন ফিডব্যাক পেয়েছি। এটাই বড় পাওয়া। সেই অর্থে বড় কোনো শিল্পী নয় আমি, তবু্ও সাপোর্ট পাচ্ছি।চেষ্টা সবসময় চেষ্টা করে যাচ্ছি নিজের ভালো কিছু কাজ দর্শকের সামনে নিয়ে আসার। ইনশাআল্লাহ সামনে কোরবানি ঈদে চেষ্টা করবো ভালো কিছু কাজ করার।’

ঈদে আসছে সাব্বির-তরুণ-সুহৃদের “মন খারাপের দিন”



কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, বার্তা২৪.কম
ঈদে আসছে সাব্বির-তরুণ-সুহৃদের “মন খারাপের দিন”

ঈদে আসছে সাব্বির-তরুণ-সুহৃদের “মন খারাপের দিন”

  • Font increase
  • Font Decrease

এই ঈদে তরুণ মুন্সীর সুরে সুহৃদ সুফিয়ানের কথায় আসছে সাব্বির নাসিরের স্যাড রোমান্টিক ঘরানার নতুন গান “মন খারাপের দিন”। গানটির গানচিত্রে অভিনয় করেছেন আবু হুরায়রা তানভীর ও পুনম হাসান জুঁই। গানচিত্রে সাব্বির নাসিরকে দেখা যাবেনা। তিনি জানান, গানচিত্রটি পরিচালনা করেছেন আফফান আজিজ প্রীতুল।

গানটি সাতমাত্রার এবং কথা ও সুরে মন খারাপের গভীরতা তীব্রভাবে প্রকাশ পেয়েছে। সাব্বির নাসিরের সচরাচর যেমন গান দেখা যায় বা শোনা যায় তা থেকে এটা একটু অন্য ধাঁচের।

;

কেমন চলছে কিয়ারা-বরুণের যুগযুগ জিও?



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
কেমন চলছে কিয়ারা-বরুণের যুগযুগ জিও?

কেমন চলছে কিয়ারা-বরুণের যুগযুগ জিও?

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজ মেহেতা পরিচালিত ‘যুগ যুগ জিও’ (Jugjugg Jeeyo) প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে গত শুক্রবার। বরুণ ধাওয়ান এবং কিয়ারা আডবানি অভিনীত ছবিটি ৬ দিন পেরোল। মুক্তিপর তিনদিন ভালো চললেও আস্তে আস্তে সিনেমাটির আয় কমতে শুরু করেছে।

যুগ যুগ জিও ছবিটি পরিচালনা করেছেন রাজ মেহতা। ছবির আইএমডিবি রেটিং ৮.২। করণ জোহরের ধর্মা প্রোডাকশনের এই ছবিতে বরুণ ধাওয়ান, কিয়ারা আদবানি ছাড়াও অভিনয় করেছেন নীতু কাপুর এবং অনিল কাপুর। আলাদা করে নজর কেড়েছে তাঁদের অভিনয়। এখনও পর্যন্ত ছবিটি সমালোচকদের কাছে মিশ্র রিভিউ পেয়েছে।

এদিকে ষষ্ঠ দিনে বক্স অফিসে ৫০ কোটির গণ্ডি পেরিয়েছে এই ছবি। বাণিজ্য বিশ্লেষক তরণ আদর্শ টুইটারে ‘যুগ যুগ জিও’র বক্স অফিস কালেকশন প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘ষষ্ঠ দিনে ৫০ কোটির গণ্ডি পেরিয়েছে এই ছবি। শুক্রবার বক্স অফিসে ৯.২৮ কোটি, শনিবার ১২.৫৫ কোটি, রোববার ১৫.১০ কোটি, সোমবার ৪.৮২ কোটি, মঙ্গলবার ৪.৫২ কোটি, বুধবার ৩.৯৭ কোটির ব্যবসা করেছে এই ছবি। দেশজুড়ে মোট ৫০.২৪ কোটির ব্যবসা করেছে এই ছবি।’


ছবির বক্স অফিসে অনেকটাই ধস নেমেছে। বক্স অফিসে বেশ চ্যালেঞ্জের মুখে এই ছবি। কার্তিক আরিয়ান অভিনীত ‘ভুলভুলাইয়া ২’, ‘গাঙ্গুবাই কাথিয়াওয়াড়ি’ এবং ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ছাড়া চলতি বছর অন্য কোনও বলিউড ছবি বক্স অফিসে তেমন ব্যবসা করতে পারেনি।

রুপোলি পর্দায় সম্পর্কের ভাঙা-গড়া, রোম্যান্স, কমেডির গল্প নিয়ে ‘যুগ যুগ জিও’। একটা সময় বাবা-মায়ের সম্পর্কের টানাপোড়েন ছাপিয়ে যায় বরুণের নিজের দাম্পত্যের সমস্যাকে। এরপর কী? সেই নিয়েই এগিয়েছে ‘যুগ যুগ জিও’-র কাহিনি।

;

মঞ্চে আসছে ‘পোহালে শর্বরী’



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মঞ্চে আসছে ‘পোহালে শর্বরী’

মঞ্চে আসছে ‘পোহালে শর্বরী’

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের পথিকৃৎ নাট্যদল 'থিয়েটার' মঞ্চে নিয়ে আসছে নতুন নাটক ‘পোহালে শর্বরী’।

শুক্র ও শনিবার (০১ ও ২ জুলাই) জাতীয় নাট্যশালায় বিকেল সাড়ে ৫ টা ও সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় পরপর দুই দিন চারটি প্রদর্শনীর মাধ্যমে নাটকটির যাত্রা শুরু হবে।

হিন্দি ভাষার সাহিত্যিক সুরেন্দ্র বর্মার রচনা থেকে নাটকটি অনুবাদ করেছেন অংশুমান ভৌমিক। নির্দেশনা দিচ্ছেন রামেন্দু মজুমদার এবং সংযুক্ত নির্দেশনায় আছেন ত্রপা মজুমদার। নাটকটির পোশাক পরিকল্পনা করছেন স্বাধীনতা পুরস্কারজয়ী অভিনয়শিল্পী ফেরদৌসী মজুমদার। এ ছাড়া মঞ্চ, আলো ও সামগ্রী পরিকল্পনা করছেন পলাশ হেন্ড্রি সেন, আবহ সংগীত পরিকল্পনায় তানভীর আলম সজীব, কোরিওগ্রাফি পরিকল্পনায় স্নাতা শাহরীন, রূপসজ্জায় শুভাশীষ দত্ত তন্ময়।

থিয়েটার নাট্যদল সূত্রে জানা গেছে, দর্শনীর বিনিময়ে দুই দিনে এই নাটকের চারটি প্রদর্শনীর অগ্রিম টিকিটের জন্য- ০১৫৫৬৩৪০৫৭৪ (বিকাশ) এই নম্বরে যোগাযোগ করতে হবে।

নাটকের নির্দেশক রামেন্দু মজুমদার বলেন, ‘বিষয়বস্তুর জন্যই আমরা এই নাটকটি মঞ্চে আনতে উৎসাহিত হয়েছি। কারণ নারীর অবস্থান আমরা আমাদের একাধিক নাটকে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। মহাভারতের ‘মাধবী’ থেকে আমাদের কালের ‘কোকিলারা’ কেবল পুরুষের প্রয়োজনেই ব্যবহৃত হয়েছে। তেমনি দেড়-দু’হাজার বছরের আশেপাশে এক কালখণ্ডে রাজবংশের উত্তরাধিকারের সংকটে নারীকে তার কামনা-বাসনার কোনো মূল্য না দিয়ে নিছক সন্তান উৎপাদনের যন্ত্র হিসেবে বিবেচনা করার এক কাহিনি বিধৃত হয়েছে এ নাটকে। তার পাশাপাশি রয়েছে ধর্মের অনুশাসন ও রাজনীতির কূট কৌশল- যার শিকার হয়েছে একইভাবে পুরুষও।’

নাটকের মহড়ার অভিজ্ঞতা জানাতে গিয়ে রামেন্দু মজুমদার বলেন, 'এ নাটকের কাজ শুরু করেছিলাম দু’বছরের বেশি সময় আগে। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে মাঝে প্রস্তুতি থেমে যায়। নাটকটির প্রতিটি চরিত্রের জন্য আমরা দু’জন করে অভিনেতা তৈরি করেছি। ফলে একদিকে যেমন দলের বেশি কর্মী কাজের সুযোগ পেয়েছেন, অন্যদিকে তেমনি কারও সমস্যার কারণে যেন প্রদর্শনী থেমে না যায়, সেটিও বিবেচনায় রাখা হয়েছে।'

নাটকটিতে অভিনয় করবেন গুলশান আরা, মাহমুদা আক্তার লিটা, নাজমুন নাহার নাজু, সামিয়া মহসীন, আপন আহসান, নূর-এ- খোদা মাশুক সিদ্দীকি, শেকানুল ইসলাম শাহী, মুশফিকুর রহমান, সামিরুল আহসান, তানভীর হোসেন সামদানী, তানভীন সুইটি, তানজুম আরা পল্লী, রাশেদুর রহমান, রবিন বসাক, ত্রপা মজুমদার, জোয়ারদার সাইফ, প্রমুখ।

;

লস এঞ্জলেসে হয়ে গেল জমকালো আনন্দমেলা



কন্ট্রিবিউটিং এডিটর, বার্তা ২৪.কম
লস এঞ্জলেসে হয়ে গেল জমকালো আনন্দমেলা

লস এঞ্জলেসে হয়ে গেল জমকালো আনন্দমেলা

  • Font increase
  • Font Decrease

২৫ ও ২৬ জুন দু’দিনব্যাপী হয়ে গেল বহুল প্রত্যাশিত লস এঞ্জেলেস আনন্দমেলা অনুষ্ঠান।

জমকালো এই অনুষ্ঠানে আনন্দমেলার সভাপতি মোহাম্মদ আলী খান ও আনন্দমেলার চেয়ারম্যান মোয়াজজেম হোসেন চৌধুরীহ বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন শোবিজ তারকা উপস্থিত ছিলেন।

আনন্দমেলার সভাপতি মোহাম্মদ আলী খান জানান, লস এন্জেলেসের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি লোক হয়েছে। এবারের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত তারকাদের মধ্যে বাংলাদেশ থেকে তাহসান খান, চঞ্চল চৌধুরী, ইমন, নাদিয়া, প্রিয়া ডায়েস, শাহানাজ খুশি, রনিসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় যারা এ অনুষ্ঠানকে এবার সাফল্যমণ্ডিত করছেন তারা হলেন- চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেল হোসেন চৌধুরী, অনুষ্ঠানের প্রধান অথিতি কংগ্রেস ওমেন ড, জুডি চো, বিশেষ অতিথি হিসেবে গান বাংলার প্রধান পরামর্শক দেলোয়ার হোসেন রাজাসহ অনেকে। অনুষ্ঠানে একসঙ্গে উপস্থিত অতিথিদের সন্মাননা ও প্রদান করা হয়।

এর আগেও এই জমকালো অনুষ্ঠানে প্রিয় শিল্পীদের এক নজর দেখা ও ছবি তোলার জন্য দর্শক হুড়াহুড়া লক্ষ্য করা যায়। লস এঞ্জলেসের ভার্জিন মিডল স্কুলের এবারের অনুষ্ঠানেও তেমনই জমকালো আয়োজন সবার নজর কেড়েছে।

;