চোখের জলে আহমেদ রুবেলকে শেষ বিদায়



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আহমেদ রুবেলকে শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন চিত্রনায়ক ও এমপি ফেরদৌস আহমেদ

আহমেদ রুবেলকে শেষ শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন চিত্রনায়ক ও এমপি ফেরদৌস আহমেদ

  • Font increase
  • Font Decrease

কুয়াশা ভেজা শীত যাই যাই করছে। এমন রুক্ষ দিনে দেশের শিল্পাঙ্গনে আরও হাহাকার তৈরি করে চলে গেলেন গুণী অভিনেতা আহমেদ রুবেল। গতকাল ৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নিজের অভিনীত সিনেমা ‘পেয়ারার সুবাস’র বিশেষ প্রদর্শনী দেখতে এসে মারা গেছেন তিনি। তার আকস্মিক মৃত্যুতে হতবাক, স্তব্ধ গোটা শোবিজ অঙ্গন।

আহমেদ রুবেলের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য আজ ৮ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা প্লাজায় আনা হয় তার মরদেহ। ঢাকা থিয়েটারের উদ্যোগে আয়োজিত এই শ্রদ্ধা নিবেদন সকালে হাজির হন দেশের নাট্য ও সিনেমা অঙ্গনের অনেক শিল্পী-তারকা। তারা অভিনেতার প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়েছেন, আবার শেয়ার করেছেন টুকরো টুকরো স্মৃতিও। অশ্রুজড়ানো কণ্ঠে সেসব বলে রুবেলের আত্মার প্রতি শান্তি কামনা করেছেন।

সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, “অত্যন্ত অকালে চলে গেলো রুবেল। অভিনয় শিল্পে তার আরও অনেক কিছু দেওয়ার ছিল। ঢাকা থিয়েটারের অনেকে অকালে চলে গেছেন, তার মধ্যে হুমায়ুন ফরীদি, সেলিম আল দীনও আছেন। আমরা সবাইকে স্মরণ করি। আমার নির্মিত ‘গেরিলা’ ছবিতে শহীদ আলতাফ মাহমুদের চরিত্রে অভিনয় করেছিল রুবেল। সেই স্মৃতিগুলো আজও মনে ভাসে। এত দারুণ অভিনয় করেছিলো যে, আলতাফ মাহমুদ যেন জীবন্ত হয়ে উঠেছিলেন।”

মামুনুর রশীদ ও নাসিরউদ্দিন ইউসুফ

কিংবদন্তি অভিনেতা ও নাট্যজন মামুনুর রশীদ স্মৃতিচারণ করেছেন এভাবে, ‘এটা এত বড় আকস্মিকতা। যে প্রসঙ্গে কথা বলতে একেবারেই ইচ্ছে করে না। আমাদের চেয়ে বয়সে কত ছোট, সুস্থ, এত পথ গাড়ি ড্রাইভ করে এলো। তারপর কী হলো! আমাদের ছেড়েই চলে গেলো। আমাদেরকে একটু সুযোগও দিলো না, সেবা করার। তার সঙ্গে বহু কাজ করেছি। অভিনয় করেছি একসঙ্গে, আমার লেখা দীর্ঘ ধারাবাহিকে কাজ করেছে। তার অভিনয় জীবন আরও দীর্ঘ হতে পারতো। আরও অনেক চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে পারতো। কিন্তু কিভাবে কী হয়ে গেলো। আমাদের কাছে রয়ে গেলো জীবন্ত রুবেলের বিনিময়ে শুধু তার স্মৃতি।’

নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম বলেছেন, “স্মৃতিচারণের ভাষা নেই আসলে। এত আকস্মিকভাবে চলে গেলো। রুবেল আমাদের সবার প্রিয় অভিনেতা। গতকাল (৭ ফেব্রুয়ারি) ‘পেয়ারার সুবাস’ দেখলাম, চমৎকার অভিনয় করেছে। কী এমন বয়স হয়েছে, আমার চেয়ে ১০ বছরের ছোট। অথচ সে চলে গেলো। এটা ভাবতেও পারছি না আমি। যাই হোক রুবেল যেখানেই থাকুক, শান্তিতে থাকুক। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।”

নাসিরউদ্দিন ইউসুফ, অমিতাভ রেজা ও রেদোয়ান রনি

ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য ও চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদও এসেছেন শ্রদ্ধা জানাতে। এরপর মাইক্রোফোনের সামনে দাঁড়িয়ে বলেছেন, “এমন একটা মুহূর্ত, কথা বলার মতো পরিস্থিতি নেই। অসাধারণ একজন অভিনেতা, একজন ভালো মানুষ। আমাদের সবাইকে চলে যেতে হবে, কিন্তু অসময়ে চলে যাওয়া মেনে নেওয়া কঠিন। আমার সৌভাগ্য হয়েছিল তার সঙ্গে একটি কাজ করার, হুমায়ূন আহমেদের ‘চন্দ্রকথা’। তার সরলতা, অসাধারণ অভিনয় দক্ষতা আমাকে মুগ্ধ করেছিল। আমি তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। অন্তর থেকে চাইবো, আহমেদ রুবেলের মতো অসময়ে কেউ যেন চলে না যায়।”
অভিনেতা ফারুক আহমেদের স্মৃতিচারণা ছিল এরকম, “১৯৮৬ সালে রুবেলের সঙ্গে আমার পরিচয়। আমার যোগ দেওয়ার তিন বছর ও ঢাকা থিয়েটারে আসে। তার উচ্চতা, কণ্ঠস্বর প্রথম দিনই আমাকে মুগ্ধ করেছিল। রুবেলের কণ্ঠস্বর শুনে আমার রীতিমতো আফসোস হতো, এত সুন্দর কণ্ঠ কীভাবে হয়! একটা স্মৃতি শেয়ার করি, সিলেটে গিয়েছিলাম শুটিং করতে। আমি বাসে করে, সে তার গাড়িতে। শুটিং শেষে রুবেল বলে, ফারুক ভাই আপনি আমার সঙ্গে যাবেন। আমি যেতে চাচ্ছিলাম না। কিন্তু সে জোর করে আমাকে গাড়িতে নিয়ে বসালো। আমাকে পেছনের সিটে বসিয়ে একটি বালিশ দিয়ে বলল, ‘আপনি ঘুমান। আমি ড্রাইভারের সঙ্গে কথা বলতে থাকি, যাতে সে না ঘুমায়।’ ভোরে যখন আজান দেয়, তখন দেখি আমি আমার বাসার সামনে। সেখানে নামিয়ে দিয়ে তবেই রুবেল তার বাসায় ফিরেছিল।”

নাসিরউদ্দিন ইউসুফ ও মোরশেদুল ইসলাম

‘আয়নাবাজি’ খ্যাত নির্মতা অমিতাভ রেজা অবশ্য একটু ভিন্ন বার্তা দিয়েছেন। আহমেদ রুবেলের প্রয়াণের প্রসঙ্গে তিনি সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন ধুমপান ও নেশা ছাড়ার জন্য। এছাড়া তার নিঃসঙ্গ জীবনের কথাও উল্লেখ করেছেন তিনি। অমিতাভ রেজা বলেন, ‘রুবেল ভাই অসাধারণ অভিনেতা, অসাধারণ ভয়েস আর্টিস্ট। কিন্তু রুবেল ভাই একজন নিঃসঙ্গ মানুষ ছিলেন। এক সপ্তাহ আগেও আমরা কেউ তার সঙ্গে যোগাযোগ করিনি। আমি সবাইকে অনুরোধ করবো, সহযাত্রীদের পাশে থাকেন। এবং ধুমপান বন্ধ করুন, সব ধরনের নেশাদ্রব্য থেকে দূরে থাকুন। সাম্প্রতিক সময়ে যারাই মারা গেছেন, সকলেরই এটা প্রধানতম কারণ ছিল। এটা এখানে বলা হয়ত উচিত না। কিন্তু আমি চাই না, এরকম দুঃখ আমাদের আরও বাড়ুক।’

অভিনয়শিল্পী সংঘের নেতা-সদস্যদের নিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে আসেন সংগঠনটির সভাপতি ও অভিনেতা আহসান হাবিব নাসিম। তিনি বললেন, ‘এটা সত্যি যে, আমরা একজন অসামান্য শিল্পীকে হারালাম। যার আরও অসাধারণ সব চরিত্রে কাজ করার কথা ছিল। যিনি সবসময় অভিনয় নিয়েই ছিলেন। এমন একজন মানুষ সবাইকে হঠাৎ স্তব্ধ করে দিয়ে চলে গেলেন। আমরা তার আত্মার শান্তি কামনা করি।’

টাপুর ও টুপুর

অভিনেত্রী তানভীন সুইটি বলেছেন, “রুবেল ভাই আমার সহশিল্পী ছিলেন। প্রচুর কাজ করেছি তার সঙ্গে। তিনি শুধু একজন গুণী অভিনেতাই নন, একজন ভাল মানুষ। শুটিং এলে বাড়তি কথা বলতেন না, শুধু নিজের চরিত্রে থাকতেন। তাকে বলতাম, নিজের যত্ন নিন। তিনি শুধু বলতেন, ‘হবে হবে’! কী হলো! সবাইকে বলবো, তার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আমিও তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।”

‘পেয়ারার সুবাস’ সিনেমার প্রযোজক শাহরিয়ার শাকিল বলেন, “সবসময় দেখা হলেই জিজ্ঞেস করতেন, ‘পেয়ারার সুবাস’ কবে আসছে? অথচ কাল (৯ ফেব্রুয়ারি) ছবিটা আসছে, তিনি নেই। সম্প্রতি তিনি আমাদের অফিসে এসেও একটি প্রেসমিটে সবাইকে ছবিটা দেখার আহ্বান জানিয়েছেন। তার প্রয়াণে আমাদের ইন্ডাস্ট্রি একজন গুণী মানুষকে হারালো।”

ছবিটির আরেক প্রযোজক রেদওয়ান রনি বলেছেন, “রুবেল ভাইয়ের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক অনেক আগের। সহকারী পরিচালক হিসেবে পথচলার শুরুর দিকেই তাকে সেটে পেয়েছি। আমার নির্মিত ধারাবাহিক ‘এফএনএফ’-এ তাকে পেয়েছি। তিনি এরকম একজন অভিনেতা, যাকে অদ্ভুত সব চরিত্রে মানিয়ে যায়। তার চেহারা, কণ্ঠস্বর; এটা সচরাচর হয় না। আমি কাল (৭ ফেব্রুয়ারি) একটা বিষয় ভাবছিলাম, আর দুইটা ঘণ্টা পরে কি হতে পারতো না! তার ছবিটা সবাই দেখছে, দর্শকের উচ্ছ্বাসটা তিনি দেখে যেতেন। আমাদের ছবিটা রুবেল ভাইকে উৎসর্গ করা হয়েছে।”

নাসিরউদ্দিন ইউসুফ ও মোরশেদুল ইসলাম

জানা গেছে, শিল্পকলা একাডেমিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে দুপুর ১টার দিকে আহমেদ রুবেলের মরদেহ নেওয়া হবে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে। সেখানেও তার প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হবে এবং অনুষ্ঠিত হবে প্রথম জানাজা। এরপর অভিনেতার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে গাজীপুরে, স্থায়ী ঠিকানায়। সেখানেই পারিবারিক কবরস্থানে তাকে আসর নামাজের পর দাফন করা হবে।

 

   

টেলরের ব্রেকআপ গানে সবাই কাঁদছে কেন?



বিনোদন ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

‘দ্য টর্চারড পোয়েটস ডিপার্টমেন্ট’ টেলর সুইফটের ১১ তম স্টুডিও অ্যালবাম। আবেগে ভরপুর এ অ্যালবামের জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছিলেন ভক্তরা। অপেক্ষার পালা শেষে একসাথে একটি ডবল অ্যালবাম বের করেছেন তিনি।

গানে গানে শ্রোতাদের হৃদয়ে কাপন ধরিয়ে দিয়েছে সুইফট। গানের কথায় উঠে এসেছে বাস্তবতার ছোঁয়া।

সুইফটের ছয় বছরের সম্পর্কের অবসানের পর "দ্য টর্চারড পোয়েটস ডিপার্টমেন্ট" প্রথম রিলিজ ঘোষণা করা হয়। এতে ব্রেকআপ গানে রাগ, দুঃখ, আকাঙ্ক্ষা এবং বিভ্রান্তির কথা দর্শকদের কাছে ফুটে উঠেছে।

গানে গানে প্রেম ভেঙে যাওয়ার গল্প তুলে এনেছেন শিল্পি। বিয়ের আংটি বদলের পর বিচ্ছেদে তার হৃদয় ভেঙ্গে যায়, সে তার জীবনের গতি হারায়- এই ধরণের ব্যথা শ্রোতাদরে সামনে হাজির করেছেন টেলর।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, হৃদয়বিদারক সঙ্গীতের সাথে শ্রোতাদের সংযোগ করা স্বাভাবিক এবং সহায়ক। সুইফট এ অ্যালবাম সম্পর্কে তার নিজস্ব দর্শন ইনস্টাগ্রাম পোস্টে ভক্তদের সাথে ভাগ করেছেন।

ওহিও স্টেট ইউনিভার্সিটি ওয়েক্সনার মেডিকেল সেন্টারের গ্যাবে ওয়েল-বিয়িং অফিস এবং স্ট্রেস, ট্রমা অ্যান্ড রেজিলিয়েন্স (স্টার) প্রোগ্রামের পরিচালক আরিয়ানা গালিঘর বলেছেন, এই লেখকের দৃঢ় বিশ্বাস চোখের পানি কাগজের পাতায় কালির মতো পবিত্র। একবার আমরা আমাদের সবচেয়ে দুঃখজনক গল্পটি বলে ফেললে, আমরা এটি থেকে মুক্ত হতে পারি।

তিনি বলেন, আপনি যদি "অল টু ওয়েল"-এর একটি পারফরম্যান্স দেখে থাকেন তবে আপনি জানেন যে সুইফট সবচেয়ে হৃদয়বিদারক অংশগুলিকে চিৎকার করে গান গাইতে দারুণ আনন্দ পায়।

ওহিও স্টেট ইউনিভার্সিটি ওয়েক্সনার মেডিক্যাল সেন্টারের মনোবিজ্ঞানী ড. জ্যারিড হিসার বলেছেন, আপনি নিজে ব্রেকআপের মধ্যে না থাকলেও, অতীতের অভিজ্ঞতাগুলো থেকে সেই আবেগগুলোকে আবার ব্যবহার করা সাহায্য করতে পারে।

তিনি বলেন, আমরা সবাই এই আবেগ এড়ানোর ফাঁদে পড়ে যাই। অতীতের মানুষটার কাছে ফিরে গেছেন এমন ভাবনা চলে আসে।

এই প্রক্রিয়াটি সেই অভিজ্ঞতাগুলির আরও গ্রহণযোগ্যতার দিকে নিয়ে যেতে পারে এবং আপনি যদি সেগুলি সম্পর্কে পুরোপুরি ঠিক বোধ না করেন তবে এটি ঠিক আছে।

হিসার বলেন, যারা সেই কঠিন অভিজ্ঞতা এবং আবেগগুলি মনে করতে নিরাপদ বোধ করেন না, সঙ্গীত এমন মানুষদের জন্য মুখ্য হতে পারে। আমি মনে করি এটি মননশীলতার একটি সহজ উপায়। তিনি বলেন। "যদি আমরা সব সময় মননশীল হতে সক্ষম হই, তবে এটি দুর্দান্ত হবে, কিন্তু আমাদের বেশিরভাগই পারে না।

গ্যালিগার বলেছেন, সুইফটের ব্রেকআপ গানের কথা লেখার মধ্যে যে সূক্ষ্মতা রয়েছে তা প্রকাশ হওয়ার পরই তিনি সাফল্য পেয়েছেন।

তিনি বলেন, যদিও তার লেখায় দুঃখ এবং ক্ষতি হতে পারে, তবে তার কাজে ক্ষমতায়নের থিমও রয়েছে।


তার নতুন অ্যালবাম, "ফ্রেশ আউট দ্য স্ল্যামার" এর একটি গানে, সুইফট লিখেছেন ‘প্রতিদিন তার হাসি এক ঝলকের জন্য অদৃশ্য হয়ে যায়’। এ থেকে তিনি শিখেছেন, তিনি মুক্ত, এবং তিনি পাঠকে এগিয়ে নিতে চলেছেন তার সাথে।

গ্যালিগার বলেছেন, তিনি সর্বদা প্রতিশোধমূলক ব্রেক আপ গানের সাথে জিলটেড প্রাক্তনের ট্রপ অনুসরণ করেন না।

তিনি বলেন, তার অনেক গান আসলে কথোপকথনে কিছুটা ভারসাম্য আনে। "এবং হ্যাঁ, (কিছু গান) এক ধরণের হাইলাইট 'এ কারণেই আমি একটি সীমানা নির্ধারণ করছি', তবে প্রায়শই এমন গানের কথাও রয়েছে যা 'আমি কীভাবে বড় হয়েছি এবং পরিবর্তিত হয়েছি এবং আমি নিজের সম্পর্কে কী শিখেছি তা এখানে রয়েছে।

সুইফ্ট তার ইনস্টাগ্রাম পোস্টে অ্যালবামটিকে প্রাসঙ্গিক করে বলেছেন যে গানগুলিতে অনুভূতির প্রকাশের অর্থ এই নয় যে এখনে একজন ভিলেন এবং একজন নায়ক রয়েছে।

ব্রেকআপ গান সান্ত্বনাদায়ক, ক্ষমতায়ন করতে পারে। এখানে খুব বেশি ভালো জিনিসও থাকতে পারে। এই আবেগগুলি উপস্থিত থাকার জন্য স্থান দেওয়া সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ, এবং সঙ্গীত সত্যিই আমাদের এটিতে ট্যাপ করতে সহায়তা করতে পারে।

;

জিতেই যেতেন নিপুণ, তবে...



বিনোদন ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
নিপুণ /  ছবি : ফেসবুক

নিপুণ / ছবি : ফেসবুক

  • Font increase
  • Font Decrease

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ডিপজলের কাছে সাধারণ সম্পাদক পদে মাত্র ১৬ ভোটের ব্যবধানে হেরেছেন দুই বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত চিত্রনায়িকা নিপুণ আক্তার। আজ (২০ এপ্রিল) সকালে ফল ঘোষণার পরে ডিপজলকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নিয়েছেন পরাজিত এই প্রার্থী।

এ সময় সাংবাদিকদের নিপুণ বলেন, ‘ডিপজল ভাইয়ের বিপক্ষে মাত্র ১৬ ভোটে হারবো সেটা আমি চিন্তাও করিনি। আমি ভেবেছিলাম ডিপজল সাহেবের সঙ্গে আমি যখন দাঁড়াবো, খুব বেশি হলে ৫০টা ভোট পাবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ২৬টা ভোট নষ্ট হয়েছে, ২০৯টি ভোট আমি পেয়েছি। যেখানে ডিপজল ভাই পেয়েছেন ২২৫টি ভোট। শিল্পী সমিতির ভাই-বোনেরা প্রমাণ করে দিয়েছেন যে, তারা আমাকে ভালোবাসেন। আমাকে এত সম্মান দেওয়ার জন্যে আমি তাদেরকে ধন্যবাদ দিতে চাই।’

নিপুণ /  ছবি : ফেসবুক

নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে মন্তব্য করে নিপুণ আরও বলেন, ‘প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই ২০২৪-২৬ নির্বাচন যারা পরিচালনা করেছেন তাদের। আমার মনে হয় আমার টার্মে থেকে আমি খুব সুন্দর একটি নির্বাচন পরিচালনা করেছি।’

তকাল শুক্রবার চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) প্রাঙ্গনে শিল্পী সমিতির কার্যালয়ে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হয় ভোটগ্রহণ। চলে বিকেল ৬টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণের পর ভোট গণনা শুরু হয় রাত আটটায়। রাতভর গণনা শেষে সকাল পৌনে ৭টার দিকে দিকে প্রাথমিকভাবে ভোট ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোরশেদ আলম খসরু।

;

নিউইয়র্কে সুচিত্রা সেন চলচ্চিত্র উৎসবে সোহানা সাবা



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
সোহানা সাবা /  ছবি : নূর এ আলম

সোহানা সাবা / ছবি : নূর এ আলম

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে শুরু হয়েছে ‘সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। আজ ও আগামীকাল (২০ ও ২১ এপ্রিল) জ্যামাইকা পারফরমিং আর্টস সেন্টারে সকাল ১১টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত চলবে এই উৎসব।

বাংলাদেশ ও ভারতের ৩৯টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে এই উৎসবে। এছাড়াও রয়েছে বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক আয়োজন ও জমকালো অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। এতে অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী সোহানা সাবা।

সোহানা সাবা /  ছবি : নূর এ আলম

তিনি যুক্তরাষ্ট্র থেকে বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘সুচিত্রা সেন আমাদের প্রতিটি বাঙালির হৃদয়ে কতোখানি জায়গজুড়ে আছেন তা নতুন করে বলার কিছু নেই। অভিনেত্রী হিসেবে তিনি অনেকের আমারও অনুসরনীয়। সেই মহানায়িকার নামে চলচ্চিত্র উৎসব হচ্ছে, তাও আবার যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশে- সবমিলিয়ে এমন সম্মানজনক আয়োজনে আমাকে আমন্ত্রন জানানোতে খুব গর্ব অনুভব করছি।’

ছবি : শিল্পীর সৌজন্যে

সোহানা সাবা ছাড়াও চিত্রনায়ক ফেরদৌস, চিত্রনায়িকা ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, তমা মির্জাসহ অনেক জনপ্রিয় তারকারা অংশ নিচ্ছেন এই উৎসবে। অনুষ্ঠানের প্রতিটি আয়োজন সবার জন্য উন্মুক্ত। কোনো প্রবেশ ফি বা টিকেট নেই।

;

মেহজাবীনের আরেক নারীকেন্দ্রিক সিনেমা ‘প্রিয় মালতী’



মাসিদ রণ, সিনিয়র নিউজরুম এডিটর, বার্তা২৪.কম
বড় পর্দায় ‘প্রিয় মালতী’ হয়ে হাজির হবেন মেহজাবীন

বড় পর্দায় ‘প্রিয় মালতী’ হয়ে হাজির হবেন মেহজাবীন

  • Font increase
  • Font Decrease

নাটক, বিজ্ঞাপন ও ওয়েব প্ল্যাটফর্মে দারুণ সফল মেহজাবীন চৌধুরী। তবে বড়পর্দায় প্রিয় অভিনেত্রীকে দেখার আগ্রহ ভক্তদের দীর্ঘদিনের।

এ বছরই সেই অপেক্ষার অবসান হতে যাচ্ছে। এরইমধ্যে জানা গেছে, বড়পর্দার জন্য করা মেহজাবীনের প্রথম চলচ্চিত্র ‘সাবা’।

এবার নিজের জন্মদিনেই সিনেমা হলের জন্য করা দ্বিতীয় সিনেমার ঘোষণা দিলেন এই জনপ্রিয় তারকা! শঙ্খ দাশগুপ্তের পরিচালনায় এবার বড় পর্দায় ‘প্রিয় মালতী’ হয়ে হাজির হবেন মেহজাবীন চৌধুরী। ফ্রেম পার সেকেন্ড ও চরকির যৌথ প্রযোজনায় সিনেমাটি এ বছরের কোনো একটা সময় মুক্তি দেয়া হবে সিনেমা হলে।

গত ১৯ এপ্রিল অর্থাৎ মেহজাবীনের জন্মদিনেই ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জমকালো এক আয়োজনের মধ্যে দিয়ে সিনেমাটির ঘোষণা দেয়া হয়।

প্রযোজক আদনান আল রাজীব আর মেহজাবীন খুব ভালো বন্ধু!

মেহজাবীন চৌধুরী বলেন, ‘জন্মদিনে সিনেমার ঘোষণাতা আমার জন্য খুব স্পেশাল। এই সিনেমায় দর্শক ভিন্ন এক মেহজাবীনকে দেখতে পাবে। এমন একটা টিমের সাথে কাজ করতে পেরে নিজেকে সত্যিই ভাগ্যবান মনে হচ্ছে।’

প্রথমেই মঞ্চে আসেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ও নুসরাত ইমরোজ তিশা দম্পতি। মেহজাবীনকে নিয়ে দেন মজার কিছু তথ্য। তিশা বলেন, ‘মেহজাবীন তার জেনারেশনের সবচেয়ে পাওয়ারফুল অভিনেত্রী। সে একইসঙ্গে দারুণ গোছানো একজন মানুষ। সে আমার বোনের মতো, কারণ আমার কোন আপন বোন নেই।’

এরপর মঞ্চে আসেন আশফাক নিপুন ও এলিটা করিম দম্পতি। তারাও জানান মেহজাবীনকে নিয়ে মজার কিছু তথ্য। আশফাক নিপুন বলনে, ‘মেহজাবীন অভিনয়ে নিজেকে যেভাবে গড়েছেন সেটা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।’

মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ও নুসরাত ইমরোজ তিশা দম্পতি

ফ্রেম পার সেকেন্ড-এর প্রযোজক আদনান আল রাজীব বলেন, ‘‘প্রিয় মালতী’র গল্পটা একদম ইউনিক। এই গল্পটা শঙ্খ (পরিচালক) যখন আমাদের সাথে শেয়ার করে তখনই সবাই পছন্দ করি। এমন গল্প আমরা কখনও দেখিনি। সেই সাথে মেহজাবীন এই সিনেমার সাথে যুক্ত হওয়াতে এই সিনেমায় অন্য একটা মাত্রা যোগ হয়েছে।’

চরকির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেদওয়ান রনি বলেন, ‘এই সিনেমার সাথে থাকতে পারাটা আমার জন্য খুব ইমোশনের। কাছের মানুষজন নিয়ে একটা সিনেমা নির্মাণ করার আনন্দটা ভাষার প্রকাশ করার না। গুণী পরিচালক, গুনী অভিনেত্রীসহ দুর্দান্ত একটা টিম এই সিনেমার সাথে যুক্ত হয়েছে। সিনেমা হলে দর্শকের কাছ পর্যন্ত পৌঁছানোটা এখন আমাদের অপেক্ষা।’

পরিচালক শঙ্খ দাশগুপ্ত বলেন, ‘‘ফিল্ম মেকিংটা আমার কাছে সব সময় কষ্টের কাজ মনে হয়। তবে ‘প্রিয় মালতী’ কাজটা আমার জন্য একদম সহজ করে দিয়েছে দুই প্রযোজক। আমি শুধু নির্মাণ ও গল্প নিয়েই ভেবেছি। সেই সাথে যাদেরকে কাস্ট হিসেবে চিন্তা করেছি তাদেরকে সাথে পেয়েছি।’

আশফাক নিপুন ও এলিটা করিম দম্পতি

মেহজাবীন এর সাথে এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন নাদের চৌধুরী, শাহজাহান সম্রাট, রিজভী রিজুসহ আরও অনেকে। গত বছরের সেপ্টম্বর-অক্টোবরের দিকে হয়েছে এই সিনেমার শ্যুট। ঢাকা-বরিশালসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ধারণ করা হয়েছে দৃশ্য।

সিনেমা ঘোষণার পাশাপাশি কেক কেটেও উদযাপন করা হয় মেহজাবীনের জন্মদিন। এই আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, নুসরাত ইমরোজ তিশা,আশফাক নিপুন, এলিটা করিম, মোস্তফা মন্ওয়ার, জেফার রহমান, রাকা নওশীন নাওয়ার সহ আরও অনেকে। সেই সাথে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিকবৃন্দ, প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ফিল্মি ফিচার, ফ্রেম পার সেকেন্ড ও চরকির সদস্যরা।

সিনেমা ঘোষণার পাশাপাশি কেক কেটেও উদযাপন করা হয় মেহজাবীনের জন্মদিন

 

;