করোনা মোকাবিলায় ২২ বিলিয়ন ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা ভারতের

  করোনা ভাইরাস



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মহামারি নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড -১৯) কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতিকে  পুনরুদ্ধার ও দরিদ্রদের সহায়তা করার জন্য ২২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি প্যাকেজ ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দিল্লিতে দেশটির অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারাম এ প্যাকেজটির ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, আমরা চাই না কেউ খিদায় থাকুক। এমনকি কারো হাতে টাকা নেই এমনটাও দেখতে চাই না।

ভারত সরকারের এ সিদ্ধান্ত প্যাকেজের আওতায় সাহায্যের প্রয়োজন অর্থাৎ দরিদ্রদের আগামী তিন মাসের মধ্যে বিনামূল্যে মাথাপিছু অতিরিক্ত ৫ কেজি চাল অথবা গম দেওয়া হবে। বিনামূল্যে গ্যাস সিলিন্ডারও দেওয়া হবে। এছাড়া স্বাস্থ্যকর্মীরা যারা করোনার প্রাদুর্ভাব রোধ ও রোগীদের সেবায় কাজ করছেন তাদের ৬৫ হাজার ডলার পর্যন্ত মেডিকেল ইনস্যুরেন্স দেওয়া হবে।

এদিকে ছোট ব্যবসায়ী যাদের কর্মী সংখ্যা একশ'র নিচে তাদের কর্মী ও মালিক উভয়কে আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। আর জরুরি পরিস্থিতিতে কেউ চাইলে নিজের প্রভিডেন্ট ফান্ডের ৭৫ শতাংশ অথবা তিন মাসের বেতন তুলতে পারবেন।

এ প্যাকেজের আওতায় দেশটির শহর ও গ্রামের দরিদ্র মানুষজন ছাড়াও রয়েছেন অভিবাসী শ্রমিকরাও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

ভারতের বিবিসির প্রতিবেদক জানান, যে অর্থ দেওয়া হচ্ছে তা ভারতের জিডিপির মাত্র ১ শতাংশ। অন্যদিকে সিঙ্গাপুর ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র করোনা মোকাবিলায় যে বিল পাস করেছে তা তাদের জিডিপির ১০ শতাংশ।

লকডাউনের আগে থেকেই ভারতের অর্থনীতি মন্দায় রয়েছে। এছাড়া লকডাউনের ফলে শিল্প-কারখান বন্ধ ও দেশটির দিনমজুররা বিপাকে পড়ে গেছে।

ব্রিটিশ আর্থিক প্রতিষ্ঠান ব্র্যাকলেস'র তথ্য মতে, এই লকডাউনের মধ্যে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হবে ১২০ বিলিয়ন ডলার। যা দেশটির মোট জিডিপির ৪ শতাংশ।

  করোনা ভাইরাস