উপসর্গহীন রোগীদের বিষয়ে বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিল ডব্লিউএইচও

  করোনা ভাইরাস



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  • Font increase
  • Font Decrease

উপসর্গহীন রোগীদের মাধ্যমে করোনা ছড়ানোর ঘটনা খুব কম—এমন বিতর্কিত মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মঙ্গলবার (৯ জুন) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি লাইভ প্রশ্নোত্তরে এ ব্যাখ্যা দেয় সংস্থাটি।

গত সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক শীর্ষ কর্মকর্ত মারিয়া ভ্যান কেরখোভ বলেন, উপসর্গহীন রোগীদের মাধ্যমে অন্য ব্যক্তিদের মধ্যে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঘটনা খুবই কম।

তিনি বলেন, বিভিন্ন দেশের পাঠানো তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করেই এই সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া গেছে। তবে এ বিষয়ে আরও নিশ্চিত হওয়ার জন্য অধিকতর তথ্যের বিশ্লেষণ করা প্রয়োজন। এখন অবধি পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এমন চিত্র দেখা যাচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে নিশ্চিত সিদ্ধান্ত নিতে হলে আরও গবেষণা প্রয়োজন বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

অন্যদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সংস্থা সিডিসিসহ অন্যান্য দেশে গবেষকদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মোট করোনা আক্রান্ত রোগীদের ৩৫ শতাংশের ক্ষেত্রে কোনো উপসর্গ দেখা যাচ্ছে না।

মঙ্গলবার লাইভ প্রশ্নোত্তর চলাকালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওই কর্মকর্তা মারিয়া ভ্যান কেরখোভ নিজের আগের মন্তব্যের বিষয়ে বক্তব্য দেন। তিনি বিষয়টিকে ‘একটি বড় অজানা’ বলে মন্তব্য করেন।

কেরখোভ বলেন, আমরা বেশিরভাগ সংক্রমণ সম্পর্কে জানি যে, উপসর্গযুক্ত লোকেরা অন্যান্যদের মধ্যে সংক্রমণ ঘটায়। তবে এমন কিছু আক্রান্ত ব্যক্তি রয়েছেন যাদের মধ্যে উপসর্গ দেখা যায় না। আসলে কতজন আক্রান্ত ব্যক্তির মাঝে উপসর্গ নেই তার উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি।

প্রশ্নেত্তরে কেরখোভ আরও বলেন, আমরা জানি কিছু লোকের মাঝে উপসর্গ নেই কিন্তু তারা ভাইরাসটির সংক্রমণ ঘটিয়ে চলেছেন। আমাদের আরও ভালোভাবে বোঝা দরকার আক্রান্তদের কত ভাগের উপসর্গ নেই এবং তাদের মধ্যে কতজন অন্যকে সংক্রমিত করে চলেছেন।

  করোনা ভাইরাস