‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন নিয়েই আ’লীগ দেশকে এগিয়ে নিচ্ছে’

  আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল-২০১৯

নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন শেখ হাসিনা/ছবি: সংগৃহীত

সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন শেখ হাসিনা/ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, তাদের শ্রদ্ধা করি। আওয়ামী লীগ জন্মলগ্ন থেকে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এই দল ক্ষমতার আলিঙ্গন থেকে প্রতিষ্ঠিত কোনও দল নয়, জনগণের ভেতর থেকে প্রতিষ্ঠিত দল।’

২০০৯-২০১৯ থেকে এই এক দশকে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। আজ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমরা উন্নীত হয়েছি। জাতির পিতার লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা।

'অর্থনৈতিক স্বাধীনতা না হলে রাজনৈতিক স্বাধীনতা ব্যর্থ হয়ে যায়' ১৯৭২ সালের আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এই কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতার পর থেকেই আমরা সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। ক্ষমতায় গেলে কিভাবে দেশের উন্নয়ন করব সেই চেষ্টা করেছি এবং দেশের তৃর্ণমূল পর্যায়েও আমরা এই উন্নয়ন পৌঁছে দিয়েছি।' 

আওয়ামী লীগের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, সারা বিশ্বের কাছে আমরা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছি। এদেশের মানুষ ছিল দারিদ্র্য সীমার নিচে বসবাস করত। তারা এক বেলা খেতে পেতো না। ছিল গৃহহারা। শিক্ষার কোনও ব্যবস্থা ছিল না। ছিল শোষিত-বঞ্চিত। তাদের কীভাবে মুক্তি দেবেন, এটাই ছিল জাতির পিতার একমাত্র লক্ষ্য। এ জন্য তিনি দেশ স্বাধীন করেছিলেন। মানুষ তার ডাকে সাড়া দিয়েছেন।’
 
'নেতৃত্ব কখনও একদিনে আসেনা, নেতৃত্ব আসে সংগ্রামের মাধ্যমে' জাতির পিতার বলা এ কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন,  তিনি পরিশ্রম করে বাংলাদেশের নেতৃত্বে এসেছেন। সারা জীবন তিনি কষ্ট স্বীকার করেছেন। অসম্প্রদায়িক সমাজ গঠন করেছেন, মানুষের কথা বলেছেন এবং তখনই তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশের জনগণ অস্ত্র তুলে নিয়ে দেশকে স্বাধীন করেছে। আর তার দেখা স্বপ্ন নিয়েই আজ আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

সম্মেলন শেষে শেখ হাসিনা কাউন্সিল আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, কাউন্সিল অধিবেশন আয়োজন করতে অনেক কষ্ট করেছেন যারা তাদেরকে আন্তরিকভাবে অভিনন্দন জানাচ্ছি। 

আগামীকাল শনিবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশন কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন,  সেখানে কেবল মাত্র কাউন্সিলররাই উপস্থিত থাকবেন। 

উপস্থিত সকল অতিথি ও কূটনৈতিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তার বক্তব্য শেষ করেন।

শুক্রবার বেলা ৩টা ৫ মিনিটে তিনি বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে আওয়ামী লীগের সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এর আগে তিনি জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এ সময় সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশিত হয়।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশন সঞ্চালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

দুইদিন ব্যাপী এবারের জাতীয় সম্মেলনের স্লোগান—‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে গড়তে সোনার দেশ, এগিয়ে চলেছি দুর্বার, আমরাই তো বাংলাদেশ’।

সম্মেলন মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীসহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সব সদস্য।

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়। পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন, তোরণ, আলোকসজ্জায় ঝলমল করছে পুরো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান। সারাদেশ থেকে প্রায় ৭ হাজার কাউন্সিলর এবং ১৫ হাজার ডেলিগেটসহ ৫০ হাজার নেতা-কর্মী ও আমন্ত্রিত অতিথি এবারের সম্মেলনে অংশ নেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন ২০১৬ সালের ২২ ও ২৩ অক্টোবর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ওই সম্মেলনে শেখ হাসিনা সভাপতি ও ওবায়দুল কাদের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

আপনার মতামত লিখুন :

  আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিল-২০১৯