২০২১: কেমন ছিল সাভারের শিল্পাঞ্চল?

  সালতামামি



হাসান ভূঁইয়া, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবিঃ বার্তা২৪.কম

ছবিঃ বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মহামারির ২০২১ সাল শুরুর পর সাভারের মানুষের বড় চাওয়া ছিল করোনার সংক্রমণ থেকে বেঁচে থাকা। প্রথম ধাপের করোনায় অর্থনৈতিক ক্ষতি ও স্বজন হারানোর বেদনা সামলে দিতে না দিতে শুরু হয় করোনার দ্বিতীয় ধাপের সংক্রমণ। যার ফলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে জনমনে। এতে করে আতঙ্কে ও কষ্টে দিন পার করে এখানকার শ্রমিকসহ খেটে খাওয়া মানুষ।

করোনার সেই আতঙ্ক কাটিয়ে আবারও ঘুড়ে দাড়াতে শুরু করেছে সাভারের শিল্পাঞ্চলবাসী। করোনায় বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্বের মতোই স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল শিল্পাঞ্চল সাভারও। এ বছরটিতে সাভারে ঘটেছে নানা আলোচিত-সমালোচিত ঘটনা।

কঙ্কাল চুরি, ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, স্মৃতিসৌধে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ও নরেন্দ্র মোদী শ্রদ্ধা, মিনি ক্যাসিনো, চলন্ত বাসে ধর্ষণ, বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু, কলেজ শিক্ষকের মরদেহ, সিঙ্গারের গোডাউনে আগুন, শীর্ষ সন্ত্রাসী গেদু রাজ আটকসহ নানা ঘটনা ঘটেছে রাজধানীর উপকণ্ঠ সাভারে।

বার্তা২৪.কমের পাঠকদের জন্য সাভারের এসব আলোচিত-সমালচিত ঘটনা তুলে ধরা হলো:

কঙ্কাল চুরি: ২০২১ এর ২৭ ফেব্রুয়ারি সাভারের আশুলিয়ার গোহাইলবাড়ির রণস্থল এলাকায় ‘রণস্থল জান্নাতুল বাকী’ নামের একটি কবরস্থান থেকে রাতের আধারে ১৬টি কঙ্কাল চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।

ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ: ২ মার্চ সাভারের আশুলিয়ায় ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনায় যুবলীগের অন্তত দুইজন আহত হয়েছে৷ এ সময় ১৪টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় মামলা হলে ইউপি সদস্যের ছেলে আটক করা হয়।

স্মৃতিসৌধে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ও মোদী শ্রদ্ধা: ২৩ মার্চ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ঢাকায় এসে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে প্রবেশ করে বীর শহীদদের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে শেরিং। এছাড়ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ২৬ মার্চ সকালে নরেন্দ্র মোদী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

মিনি ক্যাসিনো: ১২ এপ্রিল সাভারের আশুলিয়ায় অভিযান চালিয়ে মিনি ক্যাসিনোর আসর হতে ২৫ জুয়ারিকে আটক করে র‌্যাব। এ সময় নগদ টাকা, একটি ইলেকট্রিক ক্যাসিনো বোর্ড ও জুয়া খেলার প্লেইং কার্ড জব্দ করে। এছাড়াও মিনি ক্যাসিনোতে বেশ কয়েকবার অভিযান পরিচালনা করে পুলিশ ও র‌্যাব।

৬ শ্রমিক নেতা গ্রেফতার: ৯ মে সাভারের আশুলিয়ায় ভার্সেটাইল এটোয়ার লিমিটেড নামের এক পোশাক কারখানার শ্রমিকদের থেকে জোরপূর্বক চাঁদা আদায়ের অভিযোগে ৬ শ্রমিক নেতাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ডাকাত বা ডাকাতি: ২২ মে আশুলিয়ার পল্লী বিদ্যুৎ ও বাইপাইল এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাত দলের ৭ সদস্যকে আটক করেছ র‌্যাব। এছাড়ও ২৬ মে আশুলিয়ার জামগড়া মধ্যপাড়া এলাকা থেকে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের ১০ সদস্যকে আটক করে। এছাড়ও ৫ সেপ্টেম্বর সাভারের আশুলিয়ার বংশী নদী তীরবর্তী নয়ারহাট বাজারের ১৯ স্বর্ণের দোকানে ডাকাতির ঘটনাটিও ছিল বেশ চাঞ্চল্যকর।

চলন্ত বাসে ধর্ষণ: ২৮ মে সাভারের আশুলিয়ায় একটি চলন্ত বাসে তরুণিকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ৬ জনকে আটক করে পুলিশ। এছাড়া জব্দ করা হয়েছে বাসটি। রাত ১টার দিকে আশুলিয়া-সিঅ্যান্ডবি বাইপাস সড়কের আশুলিয়া গরুর হাট এলাকায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

কিশোর গ্যাং: ৩১ মে সাভারের আরাপাড়া ও বনপুকুর এলাকা থেকে মাদক, ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগে নারীসহ কিশোর গ্যাংয়ের ৭ সদস্যকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় তাদের থেকে হেরোইন ও গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

দুই ভাইয়ের গলাকাটা লাশ: ১১ জুন সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের হারুলিয়া এলাকা পাট ও ধইঞ্চা ক্ষেত থেকে গলায় ছুরিকাঘাতে হত্যার শিকার দুই খালাতো ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেই ঘটনায় মামলা হলে পরে পুলিশ অপরাধীদের আটক করে।

ঠিকাদারকে গুলি: ৬ জুন আশুলিয়ার কাঠগড়া পশ্চিমপাড়া এলাকায় দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেওয়ায় ঠিকাদারকে লক্ষ্য করে দুই রাউন্ড গুলি করে এই শাহিন পালোয়ান। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে আশুলিয়ায় থানায় মামলা দায়ের করেন ফিরোজা এন্টারপ্রাইজ নামের সেই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের মালিক বেলাল। পরে ১৯জুন দিবাগত রাতে আশুলিয়ার পালোয়ানপাড়া থেকে শাহিন পালোয়ানকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পরীমণি: ২৭ জুন দুপুরে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার মামলার প্রয়োজনে সাভার মডেল থানায় আসেন চিত্র নায়িকা পরীমণি। এর আগে গত ২৩ জুন মামলার আসামি নাসির ইউ আহমেদ ও অমিকে ৫ দিনের রিমান্ডে থানায় আনে পুলিশ।

বিশ্বের সবচেয়ে ছোট গরু: ২০২১ সালের জুলাই থেকে আগস্ট মাসে সাভারে কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল আশুলিয়ার রানী। আশুলিয়ার চারিগ্রাম গ্রামের শিকড় এগ্রো লিমিটেড নামের প্রতিষ্ঠানে বড় হয় রানী। মাত্র ২ বছর বয়সী ‘বক্সার ভূট্টি’ জাতের এই গরুটির ওজন মাত্র ২৬ কেজি, তার উচ্চতা ২০ ইঞ্চি। গিনেস বুকে নাম বিশ্বের সব চেয়ে ছোট গরু হিসেবে নাম লেখেতে আবেদন করা হয়। যদিও পরে মরে গিয়েও গিনেস বুকে নাম লেখিয়ে যায় আশুলিয়ার সেই রানী।

সিঙ্গারের গোডাউনে আগুন: ০৫ আগস্ট সাভারের রাজফুলবাড়িয়ায় সিঙ্গার ইলেকট্রনিক্সের একটি গোডাউন ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছ। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট কাজ করে। সে সময় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের রাজফুলবাড়িয়া এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে তীব্র যানযট সৃষ্টি হয়।

কলেজ শিক্ষকের মরদেহ: ০৯ আগস্ট সাভারের আশুলিয়ায় ১৯ দিন ধরে নিখোঁজ কলেজ শিক্ষকের খণ্ডিত মরদেহের ৫টি অংশ উদ্ধার করেছে র‌্যাব। সে ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে র‌্যাব। ১৩ জুলাই থেকে তার সন্ধান মিলছিল না। পরে এ ঘটনায় গত ২২ জুলাই আশুলিয়া থানায় নিখোঁজের জিডি করেন তার পরিবার।

শীর্ষ সন্ত্রাসী ‘গেদু রাজ’: ২৪ ডিসেম্বর সাভারের আশুলিয়ায় ৪ মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী শীর্ষ সন্ত্রাসী আব্দুল আলিম যুবরাজ ওরফে গেদু রাজ (৬৭) কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪ এর একটি দল। তার বিরুদ্ধে আশুলিয়া এবং কাশিমপুর থানায় নারী নির্যাতন ও মাদক সহ আরও ৬টি মামলা রয়েছে।

শান্তি, সমৃদ্ধি ও ভালোবাসা নিয়ে আসুক নতুন বছর ২০২২, এমনটাই প্রত্যাশা সাভার শিল্পাঞ্চলবাসী।

  সালতামামি

‘ঐক্য ও অগ্রগতির ২৭ বছর’ ডিআরইউ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
‘ঐক্য ও অগ্রগতির ২৭ বছর’ ডিআরইউ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

‘ঐক্য ও অগ্রগতির ২৭ বছর’ ডিআরইউ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

  • Font increase
  • Font Decrease

 ‘ঐক্য ও অগ্রগতির ২৭ বছর’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে পালিত হয়েছে রাজধানীতে কর্মরত পেশাদার রিপোর্টারদের সবচেয়ে বড় সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) ডিআরইউ প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা, বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর উদ্বোধন করেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, এমপি। সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম হাসিবের সঞ্চালনায় এ সময় সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন ডিআরইউ সভাপতি নজরুল ইসলাম মিঠু।

ডিআরইউ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এ বছর ব্যতিক্রমী আয়োজন ছিল বীর মুক্তিযোদ্ধা সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া। সরকারের সমন্বিত তালিকা অনুযায়ী ১৩ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা ডিআরইউ সদস্যের হাতে সম্মাননা স্মারক ও উত্তরীয় তুলে দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক, এমপি।


সংবর্ধনা প্রাপ্তরা হলেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃণাল কৃষ্ণ রায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শফিকুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা হারুন হাবীব, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাক আহমেদ মোবারকী, বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল বাশার চপল, বীর মুক্তিযোদ্ধা কার্তিক চ্যাটার্জী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আকরাম হোসেন খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা স্বপন দাশ গুপ্ত, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান সরদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা তালুকদার হারুন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শংকর কুমার দে ও বীর মুক্তিযোদ্ধা হালিম আজাদ।

নসরুল হামিদ মিলনায়তনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সাংবাদিকরা দেশে-বিদেশে বিশ্ব জনমত গড়ে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। জাতি এ বীরদের আজীবন স্মরণ করবে। যারা কলম সৈনিক, তারাও মুক্তিযোদ্ধা। যারা চরমপত্র লিখেছেন, তারাও মুক্তিযোদ্ধা। কারণ মুক্তিযোদ্ধা শুধু একদিক থেকে নয়, সার্বিক দিক থেকে সবকিছু মিলিয়েই মুক্তিযোদ্ধা।

সংবর্ধনা পাওয়ার অনুভূতি জানিয়ে এবং স্মৃতিচারণ করে বীর মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশে-বিদেশে যে সাংবাদিকতা হয়েছিল সে সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে জানাতে হবে, দালিলিকভাবে ইতিহাস সংরক্ষণ করতে হবে। গণমাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধাদের যারা জীবিত আছেন তাদের মূল্যায়ন করতে হবে। প্রজন্মের পর প্রজন্মে মুক্তিযোদ্ধাদের গৌরব প্রবাহিত হবে বলেও এ সময় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন বীর মুক্তিযোদ্ধারা।


ডিআরইউ সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম হাসিবের সঞ্চালনায় সভাপতির বক্তব্যে নজরুল ইসলাম মিঠু বলেন, মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে সাংবাদিকদের ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। তাদের মধ্যে অনেকেই সামনের সারিতে থেকে যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়ে বাংলাদেশকে স্বাধীন করতে জীবন বাজি রেখে ছিলেন। তাদের সম্মান করতে পেরে আমরা গর্বিত।

২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও ডিআরইউ’র সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কাফি এবং প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ও ডিআরইউ’র প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক কামাল উদ্দিন সুমন মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন।

দিনব্যাপী আয়োজনে ডিআরইউ কার্যনির্বাহী কমিটির যুগ্ম সম্পাদক শাহনাজ শারমীন, অর্থ সম্পাদক এস এম এ কালাম, দপ্তর সম্পাদক রফিক রাফি, নারী বিষয়ক সম্পাদক তাপসী রাবেয়া আঁখি, তথ্য প্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক কামাল মোশারেফ, ক্রীড়া সম্পাদক মাকসুদা লিসা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক নাদিয়া শারমিন, আপ্যায়ন সম্পাদক মুহাম্মাদ আখতারুজ্জামান ও কল্যাণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবলু, কার্যনির্বাহী সদস্য হাসান জাবেদ, মাহমুদুল হাসান, সোলাইমান সালমান, সুশান্ত কুমার সাহা, মো: আল-আমিন, এসকে রেজা পারভেজ এবং মো: তানভীর আহমেদসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া সাবেক সভাপতি শাহজাহান সরদার, এম শফিকুল করিম, সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাইফুল ইসলাম, ইলিয়াস হোসেন, রফিকুল ইসলাম আজাদ ও মুরসালিন নোমানী এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম খান তপু, রাজু আহমেদ, সৈয়দ শুকুর আলী শুভ ও কবির আহমেদ খান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ঘোড়ার গাড়ি ও বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালির আয়োজন করা হয়। র‌্যালিটি ডিআরইউ চত্বর থেকে বের হয়ে বারডেম হাসপাতাল (মহিলা ও শিশু) ও শিল্পকলা একডেমি মোড় ঘুরে ডিআরইউ চত্বরে এসে শেষ হয়।

র‌্যালি শেষে ডিআরইউ নসরুল হামিদ মিলনায়তনে কেক কাটা হয়। এছাড়া ডিআরইউ সদস্য ও পরিবারের জন্য দিনব্যাপী বিশেষ মেডিকেল ক্যাম্প ও সন্ধ্যায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

  সালতামামি

;

রংপুরে হাইটেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন: লাখো তরুণের কর্মসংস্থান হবে



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে মেধা নির্ভর অর্থনীতিতে যাওয়ার জন্য হাইটেক পার্ক হবে সমৃদ্ধ স্মার্ট বাংলাদেশের চালিকাশক্তি। লাখ লাখ তরুণের কর্মসংস্থানের ঠিকানা হবে এ হাইটেক পার্ক। রংপুর বিভাগের তরুণদের আর ঢাকা কিংবা বিদেশমুখী হতে হবে না।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) সকালে রংপুর নগরীর খলিশাকুড়ি বিল এলাকায় ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া হাইটেক পার্কের নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সততা, সাহসিকতা ও দূরদর্শিতার কারণে করোনার ধাক্কা সামলেও দেশকে এগিয়ে নিতে পেরেছেন । প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরে আমরা এখন ডিজিটাল এবং উন্নত। ২০৪১ সালের মধ্যে আধুনিক স্মার্ট বাংলাদেশ গড়া আমাদের অন্যতম ভিশন।

এর আগে সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়া হাইটেক পার্ক নির্মাণে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের ফলক উন্মোচন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শবিষয়ক তথ্যচিত্র ও ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণের তথ্য চিত্র এবং প্রকল্পের উদ্যোগে হাইটেক পার্ক রংপুরের তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এর পাশাপাশি অনুষ্ঠানে ফ্রিল্যান্সারদের মধ্যে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, জেলা পর্যায়ে হাইটেক পার্ক নির্মাণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক একেএএম ফজলুল হক, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল প্রমুখ।

ভারতীয় অর্থায়নে রংপুরসহ বাংলাদেশের ১২টি জেলায় হাইটেক পার্ক স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে এবার রংপুরে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। কথা ছিল ২০১৮ সালে রংপুরে হাইটেক পার্ক নির্মাণ শুরু হবে। কিন্তু নির্মাণকাজ শুরুর আগেই ২০২০ সালের জুনে এই প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। দীর্ঘ অপেক্ষার পর অবশেষে নগরীর খলিশাকুড়ি এলাকায় বহুল প্রতীক্ষিত হাইটেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হওয়ায় আনন্দিত রংপুরবাসী। ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া হাইটেক পার্কটি দশ একর জায়গার ওপর ১৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে।

  সালতামামি

;

শিশু ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
শিশু ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

শিশু ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরের তারাগঞ্জে ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণ মামলায় আতিকুল ইসলাম ওরফে আতিক (২৫) নামের এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) দুপুরে এ রায় দেন রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত-৩ এর বিচারক এম আলী আহমেদ। রায় ঘোষণার সময় আসামি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

আদালত ও মামলা সূত্রে জানা যায়, আতিকুল ইসলাম ওরফে আতিক স্থানীয় মসজিদের ইমাম ছিলেন। তিনি সকালে এলাকার ছেলেমেয়েদের আরবি পড়াতেন। ২০২০ সালের ৪ নভেম্বর সকাল ৭টার দিকে ১০ বছর বয়সী ওই শিশু আরবি পড়তে যায়। সকাল ৮টার দিকে অন্যান্য ছেলেমেয়েদের ছুটি দিলেও ওই শিশুকে পরে যেতে বলেন ইমাম আতিক। এরপর শিশুটিকে মসজিদ সংলগ্ন তার ঘরে নিয়ে ধর্ষণ এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর জন্য হুমকি দেয়। পরে বাড়িতে যাওয়ার পর শিশুটির প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ শুরু হলে বিষয়টি জানাজানি হয় এবং এলাকাবাসী ধর্ষক আতিকুলকে আটক করে। পরে গুরুতর অবস্থায় শিশুটিকে প্রথমে তারাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে তারাগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন।

মামলায় সরকার পক্ষের আইনজীবী বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) তাজিবুর রহমান লাইজু বলেন, মামলায় সাক্ষীদের জেরা ও শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ বিচারক আসামি আতিকুল ইসলামকে দোষি সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

  সালতামামি

;

বাংলাদেশে খাদ্য সংরক্ষণ খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী সার্বিয়া



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশে খাদ্যশস্যের সংরক্ষণ খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী সার্বিয়া। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) এফবিসিসিআই’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবুর সঙ্গে এক সৌজন্য সাক্ষাতে এ আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন ঢাকা সফররত দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোলা সেলাকোভিক।

রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সৌজন্য সাক্ষাতে সার্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, খাদ্য সংরক্ষণে তার দেশের কোম্পানিগুলো বিশ্বের অন্যতম সেরা । সার্বিয়ান অনেক প্রতিষ্ঠান আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে ব্যবসা সম্প্রসারণ করেছে। বাংলাদেশেও এই খাতে সার্বিয়ার বিনিয়োগের মাধ্যমে লাভবান হতে পারে।

সার্বিয়ার সাথে ইউরোপ, ইউরেশিয় অর্থনৈতিক ইউনিয়ন ও তুরস্কের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে। তাই সার্বিয়া ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের জয়েন্ট ভেঞ্চারের মাধ্যমে ওই দেশগুলোতে শুন্য শুল্কের পণ্য রফতানির সুবিধা গ্রহণের আহ্বান জানান মন্ত্রী।

দুই দেশের বাণিজ্য বাড়াতে সরকারি পর্যায়ে দ্বৈত কর পরিহার ও বিনিয়োগ সুরক্ষা সংক্রান্ত দুটি চুক্তি করা, বাংলাদেশ থেকে নির্মাণ ও কৃষিখাতে দক্ষ ও আধা দক্ষ জনবল নেওয়ার ব্যাপারেও আগ্রহ প্রকাশ করেন তিনি।

একই সাথে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সার্বিয়া থেকে কৃষি প্রকৌশলী বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণের আহ্বান জানান মন্ত্রী।

সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু জানান, বাংলাদেশে মোড়কীকরণ, পরিবহন ও সংরক্ষণের অভাবে বছরে ৩০ শতাংশ কৃষিপণ্য নষ্ট হয়। দেশে শুধুমাত্র আলু সংরক্ষণের জন্যই হিমাগার রয়েছে। অন্যান্য ফসলের ক্ষেত্রে এমন কোন সুবিধা নেই। তাই দেশে খাদ্য সংরক্ষণ খাতে সার্বিয়ার বিনিয়োগ করলে প্রযুক্তি স্থানান্তরের সুযোগও পাবে বাংলাদেশ।

বৈঠকে সার্বিয়ান চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ও এফবিসিসিআই’র মধ্যে শিগগিরই সমঝোতা চুক্তি সইয়ের ব্যাপারেও সম্মত হয় দুই পক্ষ। এছাড়াও সূর্যমুখী বীজ আমদানি, সার্বিয়ার গমের চুক্তিভিত্তিক চাষাবাদ এবং ঢাকায় সার্বিয়ার দূতাবাস স্থাপনের ব্যাপারে আলোচনা হয় বৈঠকে।

সৌজন্য সাক্ষাতে আরও উপস্থিত ছিলেন সার্বিয়ার অ্যাসিসট্যান্ট মিনিস্টার ফর বাইল্যাটেরাল রিলেশন্স ভ্লাদিমির ম্যারিক, পররাষ্টমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইভান জ্যাকসিক, এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি হাবীব উল্ল্যাহ ডন, পরিচালক আমজাদ হোসাইন, শমী কায়সার, ড. নাদিয়া বিনতে আমীন, আবুল কাশেম খান ও মহাসচিব মোহাম্মদ মাহফুজুল হক।

  সালতামামি

;