সাদেক হোসেন খোকার বর্ণিল জীবন

  সাদেক হোসেন খোকা আর নেই

নিউজ ডেস্ক
সাদেক হোসেন খোকা

সাদেক হোসেন খোকা

  • Font increase
  • Font Decrease

অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা মারা গেছেন। সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে কিডনির ক্যানসারে ভুগছিলেন বিএনপির এই নেতা। ক্যানসার চিকিৎসার জন্য ২০১৪ সালের ১৪ মে সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে যান তিনি। এরপর থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিউইয়র্ক সিটির কুইন্সে অবস্থান করছিলেন খোকা।

যুক্তরাষ্ট্রে থাকাকালে সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধে দেশে কয়েকটি দুর্নীতির মামলা হয়। রাজধানীর বনানী সুপার মার্কেটের কার পার্কিংয়ের ইজারা দুর্নীতির মামলায় খোকাসহ ৪ জনের ১০ বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড হয়। গত বছরের ২৮ নভেম্বর ঢাকা বিভাগীয় স্পেশাল জজ মিজানুর রহমান খান এ রায় ঘোষণা করেন।

সাদেক হোসেন খোকার বর্ণিল জীবন
১৯৫২ সালের ১২ মে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন সাদেক হোসেন খোকা। ১৯৭১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালে তিনি মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। নিজের লেখা একটি প্রবন্ধে খোকা জানান, তিনি পরিবারের অন্য কাউকে কিছু না জানিয়েই গোপনে মুক্তিযুদ্ধে চলে গিয়েছিলেন।

ছাত্রজীবনে বামপন্থি রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত খোকা আশির দশকে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। ১৯৯০ সালে ভারতে বাবরি মসজিদ ভাঙাকে কেন্দ্র করে পুরান ঢাকায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সাম্প্রদায়িক হামলার চেষ্টা হলে তা প্রতিরোধে এলাকাবাসীকে সংগঠিত করেন খোকা। এরপর পুরান ঢাকাবাসীর কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন বিএনপির এই নেতা।

১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনে ঢাকা-৭ আসন (সূত্রাপুর-কোতোয়ালি) থেকে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে পরাজিত করে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন সাদেক হোসেন খোকা।

১৯৯৬ সালের নির্বাচনে ঢাকার আটটি আসনের মধ্যে সাতটিতে বিএনপি প্রার্থী পরাজিত হলেও খোকা নিজ আসনে ঠিকই নির্বাচিত হন। এরপর আওয়ামী লীগ সরকারবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে খোকা বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ নেতায় পরিণত হন।

২০০১ সালের নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে মৎস্য ও পশুসম্পদ মন্ত্রী হন খোকা। এ সময় পুরান ঢাকায় বিএনপির রাজনীতিতে নিজস্ব বলয় তৈরির পাশাপাশি প্রতিটি থানা ও ওয়ার্ডে দলকে শক্তিশালী করেন। ২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তিনি মেয়র নির্বাচিত হন।

সাদেক হোসেন খোকা ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা ১০ বছর বিএনপি ও আওয়ামী লীগের শাসনামলে ঢাকা মহানগরের মেয়রের পদে আসীন ছিলেন।

২০১৪ সালের ১৪ মে তিনি চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যান। এরপর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।

২০১৯ সালের ৪ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিংক্যান্সার সেন্টারে সাদেক হোসেন খোকার কর্মময় জীবনের অবসান ঘটে।

আপনার মতামত লিখুন :

  সাদেক হোসেন খোকা আর নেই