রিফাত হত্যা মামলা: কারাগার থেকে আদালত পর্যন্ত কঠোর নিরাপত্তা বলয়

  রিফাত হত্যাকাণ্ড



শাহরিয়ার হাসান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ও ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বরগুনা থেকে: বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলার রায়কে ঘিরে কারাগার থেকে আদালত চত্বর পর্যন্ত গড়ে তোলা হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা বলয়। এদিকে আইনজীবীসহ মামলা সংশ্লিষ্ট ছাড়া অন্য কাউকে আদালত চত্বরে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে পুলিশ ।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টা থেকেই কারাগার থেকে আদালত আধা কিলোমিটার পর্যন্ত এ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছেন জেলা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত রিফাত হত্যা মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আসামিদের কারাগার থেকে আদালতে উপস্থিত করায় যাতে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য কঠোর নিরাপত্তার আওতায় রয়েছে আদালত চত্বর। এছাড়াও, অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে আদালত পাড়াসহ এর আশে পাশের এলাকায় মোতায়েন রয়েছে বাড়তি পুলিশ সদস্য।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সামনে থেকে কারাগার পর্যন্ত সড়কের দু’পাশে অবস্থান নিয়েছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। এদিকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থানের কারণে আসামিদেরআত্মীয় স্বজনদের অবস্থানও লক্ষ্য করা যায়নি। পুলিশ, র‌্যাবের পাশাপাশি বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদেরও সরব উপস্থিতি সকাল থেকেই এলাকাটিতে রয়েছে।

বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে এ রায় ঘোষণা করবেন।

বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত

এর আগে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে ৭৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে এক আসামির পক্ষে সাফাই সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। এরপর সকল আসামির পক্ষে-বিপক্ষে আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা। যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত এ রায়ের দিন ধার্য করেন।

প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামি হলেন- রাকিবুল হাসান ওরফে রিফাত ফরাজী (২৩), আল কাইয়ুম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজোয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), মো. হাসান (১৯), মো. মুসা (২২), আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল হাসান সায়মুন (২১)। গত বছরের ২ জুলাই রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাব্বির আহম্মেদ ওরফে নয়ন বন্ড (২৫) পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন।

বরগুনা পুলিশ সুপার মো.মারুফ হোসেন বার্তা২৪.কম-কে বলেন, এই রায়কে কেন্দ্র করে সহিংসতার চেষ্টা করা হলে কঠোরভাবে তা দমন করা হবে। এদিকে যে কোনো ধরনের নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ ও র‌্যাব থেকে মাঠপর্যায়ে বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া আছে। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী মাঠপর্যায়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী প্রস্তুতি নিয়েছে। রয়েছে সতর্ক।

আরও পড়ুন: রিফাত হত্যা মামলার রায় সকাল ১০টায়

রিফাত হত্যা মামলা: প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি, স্পটলাইটে থাকবে মিন্নি!

  রিফাত হত্যাকাণ্ড