শস্য চুক্তির একদিন পরই ইউক্রেনের বন্দরে বিস্ফোরণ

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত


আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

শস্য রফতানির জন্য কিয়েভ ও মস্কোর মধ্যে যুগান্তকারী চুক্তি স্বাক্ষরের একদিন পরই ইউক্রেনের একটি গুরুত্বপূর্ণ বন্দরে বিস্ফোরণ ঘটেছে।

শনিবার (২৩ জুলাই) ভোরে ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর ওডেসা বন্দরে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে।

বিস্ফোরণের কারণ এখনও স্পষ্ট নয় বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

শুক্রবারের চুক্তির শর্ত অনুসারে, শস্যের চালান ট্রানজিট চলাকালীন রাশিয়া বন্দরগুলোতে কোনও ধরনের হামলা চালাবে না বলে জানিয়েছিল।

কয়েক মাস ধরে চলা সংঘাতের পর জাতিসংঘ এই চুক্তিকে আশার আলো বলে বর্ণনা করেছে।

স্থানীয় এমপি ওলেক্সি হোনচারেঙ্কো টেলিগ্রামে লিখেছেন, শহরে ছয়টি বিস্ফোরণ হয়েছে এবং বন্দরে আগুন লেগেছে।

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনীয় বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী আরও কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র গুলি করে ফেলেছে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়ার সেনারা কৃষ্ণ সাগরের ইউক্রেনীয় বন্দরগুলো অবরোধ করে রেখেছে। ফলে, লাখ লাখ টন শস্য ও অনেক জাহাজকে আটকা পড়েছে। এতে বিশ্বব্যাপী সরবরাহ ব্যবস্থা আরও কঠিন হয়ে ওঠে এবং রাশিয়ার ওপর পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে বিশ্বজুড়ে খাদ্য ও জ্বালানির দাম মুদ্রাস্ফীতি বাড়িয়েছে। তবে, মস্কো বিশ্বব্যাপী ক্রমবর্ধমান খাদ্য সংকটের দায় অস্বীকার করেছে। তারা নিজস্ব খাদ্য ও সার রফতানি কমে যাওয়ার জন্য পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা এবং ইউক্রেনকে দোষারোপ করেছে।

জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা বলেন, শুক্রবার স্বাক্ষরিত একটি পৃথক চুক্তি রাশিয়ার রফতানির পথকে সহজ করবে।

   

রাশিয়ার ওয়ান্টেড তালিকায় নাভালনির ভাই



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার বিরোধী নেতা আলেক্সি নাভালনির মৃত্যুর পর এবার তার ভাই ওলেগ নাভালনিকে ওয়ান্টেড তালিকায় রেখেছে রাশিয়া। তবে কেন তার নাম এই তালিকায় রাখা হয়েছে তা বিস্তারিত প্রকাশ করেনি দেশটি।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বার্তাসংস্থা আনাদোলুর এক প্রতিবেদনে এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, রাশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত সপ্তাহে কারাগারে মারা যাওয়া বিরোধী রাজনীতিবিদ আলেক্সি নাভালনির ওলেগ নাভালনিকে রাশিয়া একটি ওয়ান্টেড তালিকায় রেখেছে।

এদিকে ওলেগ নাভালনিকে গত বছর জানুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছিল এবং করোনা মহামারি বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে এক বছরের সাজা দেওয়া হয়েছিল। তবে বর্তমানে তার অবস্থান অজানা।

রুশ এই মন্ত্রণালয় বলেছে, ফৌজদারি অপরাধের কারণে ওলেগ নাভালনিকে এই তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে। তবে এ বিষয়ে আরও বিশদ বিবরণ দেওয়া হয়নি।

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে মাত্র ৪৭ বছর বয়সে কারাগারে মৃত্যু হয় রাশিয়ার সবচেয়ে আলোচিত বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির। রাশিয়ার বিরোধী দলীয় সমাজের প্রধান ব্যক্তিতে পরিণত হয়েছিলেন তিনি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনসহ পশ্চিমা নেতারাও নাভালনির মৃত্যুর জন্য পুতিনকে দায়ী করেছেন এবং পরিণতির জন্য সতর্ক করেছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

সমঝোতায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ, প্রেসিডেন্ট জারদারি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পাকিস্তানে একটি নিষ্পত্তিহীন নির্বাচনের পরে জোট সরকার গঠনের বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছে নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ (পিএমএলএন) এবং বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)।

দেশটির স্থানীয় গণমাধ্যম দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানিয়েছে, কয়েক দফায় বৈঠকের পর অবশেষে বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে দল দুইটি সমঝোতার ঘোষণা দিয়েছে।

এ সমঝোতা অনুযায়ী, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হবেন পিএমএলএনের শেহবাজ শরিফ। আর দেশটির নতুন প্রেসিডেন্ট হবেন পিপিপির আসিফ আলী জারদারি।

এর আগে জোট গঠনে বার বার আলোচনায় বসলেও কোন চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি দল দুটি। পিএমএলএন ক্ষমতা ভাগাভাগির জন্য বিভিন্ন প্রস্তাব দিলেও তাতে সম্মত হয়নি পিপিপি। সর্বশেষ বুধবার ঐক্যমতে পৌছে দল দুটি।

পিপিপির বিলাওয়াল ভুট্টো নিশ্চিত করেছেন, শেহবাজ শরীফ আবারও প্রধানমন্ত্রী হবেন। অপরদিকে প্রেসিডেন্ট পদে বসবেন তার বাবা আসিফ আলী জারদারি। সরকার গঠন হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে। সেখানে পিপিপির আসিফ আলী জারদারিকে ভোট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পিএমএলএন।

তিনি আরও জানিয়েছেন, শুধুমাত্র পাকিস্তানের স্থিতিশীলতার জন্য তারা জোট সরকার গঠনে সম্মত হয়েছেন।

তবে নতুন সরকারের মন্ত্রীসভায় তারা কোন কোন মন্ত্রণালয়গুলো নেবেন বা পাবেন সেটি পরে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন বিলাওয়াল।

অন্যদিকে শেহবাজ শরিফ জানিয়েছেন, তারা ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু পিটিআই সরকার গঠনে পর্যাপ্ত আসন নিশ্চিত করতে পারেনি। এমনকি পিটিআইয়ের স্বতন্ত্ররা সরকার গঠন করলে পিএমএলএন বিরোধী আসনে বসতেও প্রস্তুত ছিল বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু পিটিআই সরকার গঠন করতে পারেনি। ফলে তারা সরকার গঠন করছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

সাবধান, পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে যাচ্ছে নিয়ন্ত্রণহীন স্যাটেলাইট



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পৃথিবীতে আছড়ে পড়তে যাচ্ছে কয়েক হাজার কিলোগ্রাম ওজনের বিশাল নিয়ন্ত্রণহীন অকেজো একটি স্যাটেলাইট।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় ভোর ৬টা ১৪ মিনিট নাগাদ স্যাটেলাইটটি পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। তবে স্যাটেলাইটটি সফলভাবে নিরাপদে অবতরণের কোনো সুযোগ নেই। আর তাই পৃথিবীর কোথায় স্যাটেলাইটটি আছড়ে পড়বে সে বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে কোনো তথ্য জানা যাচ্ছে না। এবং এটি কাউকে আঘাত করতেও পারে বলে সাবধান করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বায়ুমণ্ডলে প্রবেশের পর সৌর ক্রিয়াকলাপের প্রভাবে এর বড় একটি অংশ সেখানেই পুড়ে বা জ্বলে যাবে এবং অবশিষ্ট কয়েকটি টুকরো পৃথিবীতে পড়তে পারে।

মার্কিন সংবামাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, স্পেস এজেন্সিটির স্পেস ডেব্রিস অফিস ও একটি আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষণ নেটওয়ার্ক যৌথভাবে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ ও স্যাটেলাইটটি ট্র্যাকিং করছে।

স্পেস এজেন্সিটি এক বিবৃতিতে বলেছে, মহাকাশযানটির পুনরায় বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করাটা 'স্বাভাবিক' এবং এটি পরিচালনার সম্ভাবনা না থাকায় সুনির্দিষ্টভাবে জানা সম্ভব নয় যে এটি বায়ুমণ্ডলের ঠিক কোথায় প্রবেশ করবে ও ঠিক কখন জ্বলে যেতে শুরু করবে। এছাড়াও সৌর কার্যকলাপের বিষয়ে আগে থেকে কোনো কিছু অনুমান করতে না পারাটাও এর একটি কারণ।

সৌর কার্যকলাপ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের ঘনত্বের পরিবর্তন এবং স্যাটেলাইটের ওপর বায়ুমণ্ডলের আকর্ষণ বলকে প্রভাবিত করতে পারে। সূর্য যেহেতু তার ১১ বছরের চক্রের শীর্ষের খুব কাছাকাছি রয়েছে, তাই সৌ ক্রিয়াকলাপও বাড়ছে। চলতি বছরের শেষের দিকে সৌর ক্রিয়াকলাপ সর্বাধিক হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সৌরচক্র মূলত সূর্যের চৌম্বকক্ষেত্রের চক্রাকার পরিবর্তনের নাম। চক্রাকার এই পরিবর্তনের জন্য সময় লাগে গড়ে ১১ বছরের মতো। এই চক্র চলাকালীন সূর্যের মেরু পরিবর্তিত হতে থাকে। অর্থাৎ সূর্যের দক্ষিণ ও উত্তর মেরু একে অন্যের সঙ্গে জায়গা বদল করে।

স্পেস এজেন্সির তথ্যমতে, জ্বালানি ছাড়াই ইআরএস-২ স্যাটেলাইটের আনুমানিক ভর ৫ হাজার ৫৭ পাউন্ড (দুই হাজার ২৯৪ কিলোগ্রাম)। পৃথিবীর পৃষ্ঠ থেকে প্রায় ৫০ মাইল (৮০ কিলোমিটার) ওপরে স্যাটেলাইটটি ভেঙে যাবে এবং এর বেশিরভাগ অংশ বায়ুমণ্ডলে পুড়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এজেন্সিটি আরও জানায়, স্যাটেলাইটটির কয়েকটি টুকরো পৃথিবীতেও পড়তে পারে। তবে ভয়ের কারণ নেই। এতে কোনো ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা বা ক্ষতিকর কোনো বস্তু নেই। আর সম্ভবত টুকরোগুলো সমুদ্রে পড়বে।

জানা যায়, পৃথিবীর ভূমি, মহাসাগর ও মেরু অঞ্চলের তথ্য সংগ্রহের জন্য ১৯৯৫ সালে ইআরএস-২ নামের স্যাটেলাইটটি মহাকাশে পাঠানো হয়। প্রায় ৩০ বছর ধরে আমাদের গ্রহের ওপরে ঘুরে বেড়িয়েছে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির স্যাটেলাইটটি।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

ওমরাহ পালন ও রোনালদোর খেলা দেখতে পায়ে হেঁটে দুবাই থেকে সৌদি!



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পায়ে হেঁটে ৯ দিনের দীর্ঘ যাত্রা সম্পন্ন করে সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন দুবাইতে বসবাসকারী ২২ বছর বয়সি ফিলিস্তিনি-কানাডিয়ান নাগরিক ইউসেফ হুসেন। ঘুওয়াইফাত সীমান্ত দিয়ে তিনি সৌদি আরবে প্রবেশ করেন বলে জানিয়েছে খালেজ টাইমস।

তার এই দীর্ঘ পথ পায়ে হেঁটে পাড়ি দেওয়ার মূল উদ্দেশ্য হলো ওমরাহ পালন করা এবং রিয়াদে রোনালদোর ফুটবল ম্যাচ প্রত্যক্ষ করা। তিনি গত ১ ফেব্রুয়ারিতে তার দুঃসাহসিক যাত্রা শুরু করেছিলেন।

সৌদি আরব সীমান্তে পৌঁছানোর পর ইউসেফ, তার বাবা, ভাই এবং বন্ধুর সঙ্গে গাড়িতে করে তার বাকি যাত্রা শেষ করেন। তারা ওমরাহের জন্য জেদ্দা এবং তারপর মক্কায় যান।

ইউসেফ সম্প্রতি একজন রাসায়নিক প্রকৌশলী হিসাবে স্নাতক হয়েছেন এবং খণ্ডকালীন কাজ করছেন।

তিনি বলেন, ‘যেকোনও বাধাই আসুক না কেন আমি সীমান্তে পৌঁছাতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলাম। এটা সবসময় আমার দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন ছিল।’

তিনি আরও বলেন, আমি প্রতিদিনের ভোর সাড়ে চারটায় জগিং শুরু করে দুই ঘন্টা পর এক ঘন্টা বিশ্রাম নিতাম। আমি প্রতিদিন ৪০-৫০ কিলোমিটার এগিয়েছি। পরের দিন ভোর বেলায় হাঁটা শুরু করতে রাত ৮টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়তাম এবং রাত্রিগুলো গাড়িতে, হাইওয়ে হোটেলে কিংবা লেবাইসে কাটাতাম।’

ইউসেফ বলেন, ‘ঠান্ডা তীব্র ছিল এবং উষ্ণ বাতাসে শ্বাস নেওয়ার জন্য আমাকে মুখোশ পরতে হয়েছিল। হাইওয়ে লাইটের অনুপস্থিতি আমাকে দ্রুত চলমান যানবাহন সম্পর্কে উদ্বিগ্ন করে তুলেছিল এবং সেই মুহুর্তগুলিতে আমি একাকীত্ব অনুভব করেছি।’

তিনি বলেন, ‘আমি আমার লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রস্তুত ছিলাম। এই অভিজ্ঞতা চিরকাল আমার সঙ্গে থাকবে।’

ওমরাহ পালনের পর তিনি তার পরিবারের সঙ্গে রিয়াদে রোনালদোর ফুটবল খেলা প্রত্যক্ষ করেন।

ইউসেফ বলেন, ‘২০২২ বিশ্বকাপের পর আমি আমার বন্ধু এবং ভাইদের বলেছিলাম, রোনালদো যদি সৌদি আরব দলে যোগ দেন, তাহলে আমি পায়ে হেঁটে তার খেলা দেখতে যাবো। আমি স্বপ্ন পুরণ করতে পেরে খুব গর্বিত এবং আনন্দিত।’

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;