ইউক্রেনকে আরও সামরিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি অস্ট্রেলিয়ার

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত


আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনকে আরও সামরিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ।

স্থানীয় সময় রোববার (০৩ জুলাই) ইউক্রেনের কিয়েভ সফরে গিয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে এই প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। খবর বিবিসির।

কোনো পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই রোববার কিয়েভ সফরে যান অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী অ্যান্টনি আলবানিজ। তিনি এর আগে বিধ্বস্ত শহর বুচা এবং ইরপিন ভ্রমণ করেছিলেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়, ১০০ মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান ডলার মূল্যের এই সহায়তা প্যাকেজটিতে ড্রোন এবং ৩৪টি অতিরিক্ত সাঁজোয়া যান অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী আরও ১৬ রাশিয়ান মন্ত্রী ও অলিগার্চের ওপর নিষেধাজ্ঞা এবং রাশিয়ান সোনা আমদানি বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, তিনি এই সফরে ইউক্রেনের ধ্বংস ও আঘাত নিজ চোখে দেখেছেন।

কিয়েভের প্রেসিডেন্সিয়াল প্যালেসে এক সংবাদ সম্মেলনে আলবানিজ বলেন, তার দেশ ইউক্রেনকে যুদ্ধে জয় পেতে যতদিন সময় লাগবে ততদিন সমর্থন করবে।

যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রের মতো অস্ট্রেলিয়াও ইউক্রেনে তার দূতাবাস পুনরায় খোলার কথা বিবেচনা করছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করেছে রাশিয়া। ভয়াবহ হামলায় ইউক্রেনের কয়েক হাজার বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছে। তাদের অভিযানকে অবৈধ অ্যাখা দিয়ে মস্কোর ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে আসছে পশ্চিমা দেশগুলো।

   

ইউক্রেনে সেনা পাঠানো নিয়ে পশ্চিমাদের সতর্ক করলেন পুতিন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইউক্রেনে সেনা পাঠানো নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোকে সতর্ক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, এ ধরনের সিদ্ধান্তের পরিণতি হবে ‘দুঃখজনক’।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) মস্কোয় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এসব কথা বলেন পুতিন। পশ্চিমাদের সতর্ক করে তিনি বলেন, রুশ সেনারা ইউক্রেনে যুদ্ধের ময়দানে সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন। এখন কোনো দেশ যদি কিয়েভের সহায়তায় সৈন্য পাঠানোর সাহস দেখায়, তার ‘পরিণতি হবে দুঃখজনক’।

রুশ প্রেসিডেন্ট বলেন, তাদের (পশ্চিমা দেশ) শেষ পর্যন্ত এটা মাথায় রাখা উচিত যে আমাদের এমন সব সমরাস্ত্র রয়েছে, যেগুলো তাদের ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম। পশ্চিমাদের সব পদক্ষেপই এমন সংঘাতের প্রকৃত ঝুঁকি সৃষ্টি করে, যেখানে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার হতে পারে। আর এভাবে সভ্যতা ধ্বংস হয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, রাশিয়াকে এখন তার পশ্চিম সীমান্তে প্রতিরক্ষা শক্তিশালী করতে হবে। এমন সময় তিনি এ ঘোষণা দিলেন যখন সুইডেন ও ফিনল্যান্ড ন্যাটোতে যোগ দিতে যাচ্ছে।

পুতিন বলেন, পশ্চিমারা ইউক্রেনের সংঘাতকে উসকানি দিয়েছে এবং মিথ্যা বলে চলেছে যে রাশিয়া ইউরোপে আক্রমণ করতে চায়।

জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে দেশের অভ্যন্তরীণ নানা বিষয় নিয়েও কথা বলেছেন পুতিন। ১৫ থেকে ১৭ মার্চ রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ নির্বাচনে পুতিনের কোনো প্রকৃত বিরোধী নেই। ফলে নির্বাচনের ফল কী হবে, তা অনেকটাই নিশ্চিত। নির্বাচনের আগে চলতি বছরের শুরু থেকে গণমাধ্যমে পুতিনের উপস্থিতিও বেড়েছে। সম্প্রতি একটি বোমারু বিমানে চড়ে সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন তিনি।

 

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

রাম রহিমকে প্যারোলে মুক্তি দিতে আদালতের অনুমতি লাগবে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতে খুন এবং ধর্ষণের অপরাধে জেল খাটছেন ডেরা সাচা সৌদা প্রধান গুরমিত রাম রহিম সিং। আদালতের অনুমতি ছাড়া আর তাকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া যাবে না বলে। এমনটাই বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) জানিয়েছে পাঞ্জাব এবং হরিয়ানার হাইকোর্ট।

এনডিটিভি জানিয়েছে, হরিয়ানা সরকারকে আদালত নির্দেশ দিয়েছে যে, রাম রহিমকে প্যারোলে মুক্তি দিতে হলে আগে আদালতের অনুমতি নিতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ৫০ দিনের জন্য প্যারোলে জেলের বাইরে বেরিয়েছিলেন রাম রহিম। তার আগে গত নভেম্বরে তাঁকে ২১ দিনের জন্য মুক্তি দেওয়া হয়েছিল।

ডেরার ম্যানেজার রঞ্জিত সিংকে হত্যা এবং সিরসার আশ্রমে দুই শিষ্যাকে ধর্ষণের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন রাম রহিম। তাকে ২০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

জেলে থাকাকালীন রাম রহিমের ঘন ঘন প্যারোলে মুক্তি নিয়ে নানা সময়ে নানা মহলে প্রশ্ন উঠেছে। সম্প্রতি শিরোমণি গুরুদ্বার নিবন্ধন কমিটি তার এই প্যারোলে মুক্তির বিরোধিতা করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল। সেই মামলাতেই উচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছে, আগামীতে রাম রহিমকে প্যারোলে মুক্তি দিতে হলে আদালতের অনুমতির প্রয়োজন হবে। অনুমতি ছাড়া আর মুক্তি পাবেন না তিনি।

শুনানিতে রাজ্য সরকারের আইনজীবীকে বিচারপতি প্রশ্ন করেন, রাম রহিমের মতো ঘন ঘন মুক্তি পেয়েছেন, এমন আর একজন অপরাধীর উদাহরণও তারা দেখাতে পারবেন কি না।

রাম রহিমের ঘন ঘন এই মুক্তি পাওয়া নিয়ে সরব হয়েছিল দিল্লির নারী কমিশনও। এ ছাড়াও বেশ কয়েকটি সংগঠন তার প্যারোলের বিরোধিতা করেছে।

তবে হরিয়ানা, পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ এবং রাজস্থানে সিরসা এলাকায় রাম রহিমের ডেরার প্রচুর সংখ্যক ভক্ত থাকার জন্য তিনি রাজনৈতিক দলগুলোরও অনুগ্রহ পেয়ে থাকেন বলে একটি অংশের অভিযোগ রয়েছে।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

গাজায় ত্রাণ বিতরণের সারিতে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলি, নিহত ১০৪



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গাজার দক্ষিণ-পশ্চিমে ত্রাণ বিতরণের পয়েন্টে সারিতে দাঁড়িয়ে থাকা ফিলিস্তিনিদের ওপর হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে ১০৪ জন নিহত ও ৭৬০ জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ খবর জানায় কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরা।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলছেন, ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করা এলাকাটি ক্ষুধা সংকটে ছিল।  

ইসরায়েলি বাহিনীর এই হামলার ঘটনাকে ‘‘গণহত্যা’’ উল্লেখ করে তীব্র নিন্দা জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, ইসরায়েলের চলমান হামলা "গণহত্যা যুদ্ধের" অংশ।

বেসামরিক নাগরিকদের রক্ষার একমাত্র উপায় হিসেবে যুদ্ধবিরতির জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আহ্বানও জানায় মন্ত্রণালয়টি। 

প্রতিবেদনে জানানো হয়, আটা বহনকারী ত্রাণবাহী ট্রাকগুলো দেশটির আল-রশিদ স্ট্রিটে জমায়েত হয়েছিল। সেখানেই ইসরায়েল এ হামলা চালায়। 

ঘটনাটির একটি ভিডিও ফুটেজ আল জাজিরা যাচাই করেছে। ফুটেজে দেখা যায় নিহত ও আহতদের ট্রাকে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, আমরা আটা আনতে গিয়েছিলাম। ইসরায়েলি সেনাবাহিনী আমাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে অনেক মানুষ নিহত হওয়ার পাশাপাশি আহত হয়েছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

রাশিয়া থেকে নিজেদের তৈরি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করলো ইরান



আন্তর্জাতিক ডেস্ক বার্তা২৪.কম
ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

পশ্চিমাদের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মধ্যে ইরানের তৈরি একটি গবেষণা স্যাটেলাইট কক্ষপথে উৎক্ষেপণ করেছে রাশিয়া।

ইরানের সরকারি বার্তা সংস্থা ইরনা জানিয়েছে, ‘পারস-১’ নামের স্যাটেলাইটটি বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাশিয়ার ভোস্টোচনি কসমোড্রোম থেকে মস্কোর সয়ুজ রকেট দ্বারা উৎক্ষেপণ করা হয়।

ইরানের টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী ইসা জারেপুর বলেছেন, ‘পার্স-১ সম্পূর্ণভাবে দেশীয় উন্নত প্রযুক্তিতে তৈরি।’

ইরান দাবি করেছে, এটি তার ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কর্পস (আইআরজিসি) দ্বারা একটি গবেষণা স্যাটেলাইট।

উল্লেখ্য, গত জানুয়ারিতে নিজস্ব রকেট ব্যবহার করে কক্ষপথে একই সঙ্গে তিনটি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছিল ইরান।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা সরকারগুলো বারবার ইরানকে এই ধরনের উৎক্ষেপণের বিরুদ্ধে সতর্ক করে বলেছে, একই প্রযুক্তি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

কিন্তু, যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমাদের ওই অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করেছে তেহরান।

২০১৮ সালে একটি যুগান্তকারী পারমাণবিক চুক্তি থেকে প্রত্যাহারের পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার অধীনে থেকেও তার পারমাণবিক কর্মকাণ্ডকে সম্প্রসারিত করেছে তেহরান।

২০২২ সালের আগস্টে রাশিয়া কাজাখস্তান থেকে কক্ষপথে ইরানের রিমোট-সেন্সিং ‘খৈয়াম’ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করেছিল, যা দুই দেশের মধ্যে গভীর বৈজ্ঞানিক সহযোগিতার প্রতিফলন ঘটিয়েছিল।

এভাবে ইরানসহ পশ্চিমাদের দ্বারা বঞ্চিত অন্যান্য দেশের সাথে তার মিত্রতা জোরদার করার চেষ্টা করেছে মস্কো।

এ ছাড়াও রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউক্রেনে আক্রমণের জন্য সামরিক ড্রোন সরবরাহ করার অভিযোগ করেছে পশ্চিমারা।

চলতি মাসে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের ক্ষেত্রে ইরানের সমর্থনের জন্য শীঘ্রই তেহরানের উপর নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে তারা।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;