ফিনল্যান্ড-সুইডেনের ন্যাটো সদস্যপদে সমর্থন দিতে সম্মত তুরস্ক

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বের সর্ববৃহৎ সামরিক জোট ন্যাটোতে যোগদানে ফিনল্যান্ড ও সুইডেনের সদস্যপদ আবেদনে সমর্থন দিতে সম্মত হয়েছে তুরস্ক।

বুধবার (২৯ জুন) ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

এবিষয়ে ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, মাদ্রিদে ন্যাটো সম্মেলনে বৈঠকের পর তিনটি দেশ একটি যৌথ স্মারক স্বাক্ষরের পর এই অগ্রগতি এসেছে।

ইউক্রেনে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রুশ হামলা শুরুর পর নিরাপত্তা শঙ্কা থেকে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট ন্যাটোর সদস্য হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ ন্যাটো জোটের অনেক সদস্যদেশ এ উদ্যোগকে স্বাগত জানায়। তবে তুরস্ক বলে আসছিল, ফিনল্যান্ড-সুইডেনের ন্যাটোতে যুক্ত হওয়ার প্রক্রিয়ায় তাদের আপত্তি রয়েছে। এ উদ্যোগে বাধা দেবে আঙ্কারা।

কারণ কুর্দি জঙ্গিদের আতিথেয়তা করার ইচ্ছা দেখে ক্ষুব্ধ হয়েছিল তুরস্ক। আর তুরস্কের সমর্থন ছাড়া সুইডেন ও ফিনল্যান্ড ন্যাটোতে যোগ দিতে পারত না।

ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ বলেছেন, ন্যাটো নেতারা বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনকে জোটে যোগ দিতে আমন্ত্রণ জানাবেন।

তিন দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা একটি যৌথ নিরাপত্তা চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন যা তুরস্কের উদ্বেগের সমাধান করেছে।

ন্যাটো প্রধান বলেন, দুই নর্ডিক দেশ তুরস্কের কাছে অস্ত্র বিক্রির ওপর থেকে তাদের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবে।

সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন বলেছেন, এটি ন্যাটোর জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের কার্যালয় জানিয়েছে, তারা সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের কাছ থেকে যা চেয়েছিল তা পেয়েছে।

এদিকে, মাদ্রিদে শীর্ষ সম্মেলনে বিশ্ব নেতারা উচ্চ সতর্কতায় সৈন্য সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা অনুমোদন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। জার্মানিতে পৃথক শীর্ষ সম্মেলনের সময় জি-৭ নেতারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেছেন।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

ইন্দোনেশিয়ায় কয়লা খনিতে বিস্ফোরণে নিহত ১০



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইন্দোনেশিয়ায় একটি কয়লা খনিতে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। বিস্ফোরণে ধসে পড়ে অন্তত ১০ জন শ্রমিক নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) উদ্ধারকারী সংস্থার বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে এএফপি।

স্থানীয় অনুসন্ধান ও উদ্ধার সংস্থা জানিয়েছে, ‘মিথেন গ্যাসের কারণে বিস্ফোরণ ঘটেছে। সংস্থার এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। চারজন চাপা পড়লেও বেঁচে গেছেন বলেও জানান তিনি।

খনিটি সরকারের অনুমতিক্রমেই তথা বৈধভাবেই কার্যক্রম চালাচ্ছিল বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তবে খনিজ-সমৃদ্ধ দ্বীপপুঞ্জের দেশটিতে প্রায়ই খনি দুর্ঘটনা ঘটে। বিশেষ করে লাইসেন্সবিহীন পরিত্যক্ত স্থানে যথাযথ নিরাপত্তা সরঞ্জাম ব্যবহার না করেই কাজ করার ফলে এসব দুর্ঘটনা ঘটে থাকে।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

রুশ কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন মার্কিন বাস্কেটবল তারকা গ্রিনার



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার সঙ্গে বন্দি বিনিময়ের মাধ্যমে কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন মার্কিন বাস্কেটবল তারকা ব্রিটনি গ্রিনার। বিনিময়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে ১২ বছর ধরে দেশটির কারাগারে বন্দী অস্ত্র ব্যবসায়ী ভিক্টর বাউটকে।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এ বন্দিবিনিময় আবুধাবি বিমানবন্দরে হয়েছে।

এক টুইটবার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, তিনি (গ্রিনার) নিরাপদ। তিনি প্লেনে আছেন এবং বাড়ি ফিরছেন।

ওভাল অফিস থেকে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস গ্রিনারের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন বলে জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা। ফোন কলে গ্রিনারের স্ত্রী চেরেলও যুক্ত ছিলেন।

দুইবার অলিম্পিক গোল্ড মেডেলের জয়ী ব্রিটনিকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বাস্কেটবল খেলোয়াড় বলে মনে করা হয়। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে মস্কোর কাছের একটি বিমানবন্দর থেকে তাকে আটক করা হয়। ওই সময়ে তার লাগেজে গাঁজার তেল থাকা একটি ভেপ কার্টিজ পাওয়া যায়। যুক্তরাষ্ট্রে মৌসুম না থাকায় রাশিয়ায় ক্লাব বাস্কেটবল খেলতে যান তিনি।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকি বাড়ছে: পুতিন



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, পারমাণবিক যুদ্ধের হুমকি বাড়ছে। তবে, তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, রাশিয়া ‘পাগল হয়ে যায়নি’ এবং প্রথমে কখনো পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করবে না।

পুতিন বলেন, তার দেশ হামলার জবাবে শুধুমাত্র গণবিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহার করবে।

বুধবার (৭ নভেম্বর) রাশিয়ার বার্ষিক মানবাধিকার কাউন্সিলের বৈঠকে এমন মন্তব্য করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। তিনি আরও ইঙ্গিত দিয়েছেন, ইউক্রেনে দীর্ঘ সময়ের জন্য যুদ্ধ করবে রাশিয়া।

বিবিসির খবরে বলা হয়, পশ্চিমা কর্মকর্তারা বিশ্বাস করেন পুতিন যুদ্ধের প্রথম দিকে দ্রুত বিজয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন। ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন আক্রমণ করার পর থেকে রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের ক্ষমতা বৃদ্ধিও করেছিল বলে জানান তারা।

পরমাণু হামলার আশঙ্কা বেড়ে যাওয়ার ব্যাপারে পুতিন বলেছেন, ‘এমন হুমকি বেড়ে চলছে। এটি লুকানো ভুল হবে।’

তবে রাশিয়া আগে কখনো পরমাণু হামলা চালাবে না বলে আশ্বস্ত করে তিনি বলেছেন, আমরা প্রথমে পরমাণু হামলা চালাব না এবং কাউকে পরমাণু অস্ত্র দিয়ে হুমকি দেব না। রাশিয়া পাগল হয়ে যায়নি। আমরা জানি পরমাণু অস্ত্র কি।

তিনি জানিয়েছেন রাশিয়ার কাছে বিশ্বের সর্বাধুনিক পরমাণু অস্ত্র আছে। কিন্তু রাশিয়ার পরমাণুনীতি যুক্তরাষ্ট্রের মতো না। তার দাবি, মার্কিনিরা তাদের পরমাণু অস্ত্র তুরস্কসহ ইউরোপের অন্যান্য দেশেও মজুদ রেখেছে। যা রাশিয়া করেনি।

পুতিন গর্ব করে বলেন, রাশিয়ার কাছে বিশ্বের সবচেয়ে আধুনিক এবং উন্নত পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে। ।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, ইউক্রেনে সামরিক অভিযান দীর্ঘ হবে। এছাড়া ইউক্রেনের চার অঞ্চল অধিগ্রহণ করার বিষয়েও কথা বলেছেন পুতিন। তার দাবি, অধিকৃত খেরসন, জাপোরিঝিয়া, দোনেৎস্ক এবং লুহানেস্ক বেশ ভালো আছে।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;

৫ বিক্ষোভকারীকে মৃত্যুদণ্ড দিল ইরান



আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ইরানে চলমান সরকারবিরোধী বিক্ষোভ থেকে সরকারি আধাসামরিক সদস্যকে হত্যার অভিযোগে পাঁচজনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে দেশটির আদালত।

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) বিচার বিভাগের মুখপাত্র মাসুদ সেতায়েশি একটি সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

তবে এ রায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন অধিকার কর্মীরা।

বিচার বিভাগ বলছে, এই হত্যাকাণ্ডের জন্য তিন শিশুসহ আরও ১১ জনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা যাবে।

প্রসিকিউটররা জানান, আধা-সামরিক বাহিনীর সদস্য রুহুল্লাহ আজমিয়ানকে (২৭) নগ্ন করে হত্যা করা হয় ওই বিক্ষোভ থেকে।

গত সেপ্টেম্বরে ২২ বছরের কুর্দি নারী মাহশা আমিনির মৃত্যুর পর ইরানজুড়ে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ এক পর্যায়ে সরকারবিরোধী আন্দোলনে রূপ নেয়।

ওই বিক্ষোভ থেকে “নৈতিকতা পুলিশের” কার্যক্রম বাতিল এবং বাধ্যতামূলক হিজাবের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলে আন্দোলনকারীরা।

গত সেপ্টেম্বর থেকে চলা আন্দোলনে এখন পর্যন্ত ২০০ জন নিহত হয়েছেন বলে দেশটির সরকার স্বীকার করেছে। তবে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা বলেছে, হিজাববিরোধী আন্দোলনে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সহিংসতায় ৪০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন।

ইরান সরকার ব্যাপকভাবে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দমন করছে।

এর আগে রবিবার (৪ নভেম্বর) ইরানের নারী ও বিক্ষোভকারীদের ওপর নির্যাতন-সহিংসতার অভিযোগের জেরে “নৈতিকতা পুলিশের” কার্যক্রম স্থগিত করে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

দেশটিতে দুই মাসের বিক্ষোভ চলার পর এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ইরানের প্রসিকিউটর জেনারেল মোহাম্মদ জাফর মনতাজরি এই ঘোষণা দেন।

বিচার বিভাগ বলছে, গত ৩ নভেম্বর তেহরানের পশ্চিমে করাজে ছুরি, পাথর, কিলঘুসি ও লাথি মারতে মারতে সড়কে টেনে নিয়ে তাকে হত্যা করা হয়।

ইরানের শক্তিশালী ইসলামিক বিপ্লবী গার্ড কর্পসের সাথে যুক্ত রাষ্ট্র-অনুমোদিত স্বেচ্ছাসেবক বাহিনী বাসিজের অন্তর্গত ছিলেন তিনি।

  রুশ-ইউক্রেন সংঘাত

;