ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

  ইরান-আমেরিকা দ্বন্দ্ব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কোনো প্রকার শর্ত ছাড়াই ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে দেওয়া এক চিঠিতে মার্কিন রাষ্ট্রদূত কেলি ক্র্যাফট এ কথা বলেন।

চিঠিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তা যাতে হুমকির মুখে না পড়ে এবং মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা যাতে বৃদ্ধি না পায় সেজন্য যুক্তরাষ্ট্র আলোচনায় বসতে প্রস্তুত রয়েছে।

নিজেদের আত্মরক্ষার্থে সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। জাতিসংঘের ৫১তম অনুচ্ছেদের কথা উল্লেখ করে চিঠিতে জানানো বলা হয়, জাতিসংঘ সনদের ৫১ ধারায় বলা আছে কোন রাষ্ট্র যদি নিজেদের রক্ষার জন্য পদক্ষেপ নেয় তাহলে সেটি দ্রুত জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে অবহিত করতে হবে। আর আমরা তা করেছি।

মধ্যপ্রাচ্যে নিজেদের সৈন্য এবং স্বার্থ রক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্র প্রয়োজনে অতিরিক্ত ব্যবস্থা নিবে বলে চিঠিতে জানানো হয়।

এদিকে চিঠিটি সম্পর্কে জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানি দূত মাজিদ তখত রাভানচি বলেন, মার্কিন অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার মধ্যে আলোচনার প্রস্তাবটি অবিশ্বাস্য ছিল।

মার্কিনি চিঠির প্রেক্ষিতে একটি চিঠি ইরানও দিয়েছে। সেখানে ইরান জানায়, তেহরানও কোনো যুদ্ধ চায় না। আর নিজেদের আত্মরক্ষার্থে ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত তিন জানুয়ারি মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা কাসিম সোলাইমানি নিহত হন। এ ঘটনার প্রেক্ষিতে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। হামলায় ৮০ জন মার্কিন সেনা সদস্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করে ইরান। আর কোনো প্রকার হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে জানায় ট্রাম্প। ইরান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টাপাল্টি হামলায় মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বেড়েই চলছে।

এদিকে হামলার পর ইরানের ওপর নতুন করে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আর মধ্যপ্রাচ্যে থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বিতাড়িত করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন খামেনি।

  ইরান-আমেরিকা দ্বন্দ্ব