শহর বহিরাগত দিয়ে ভরে গেছে: তৈমূর

  নাসিক নির্বাচন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, ‘সিটির বিভিন্ন এলাকা, বিভিন্ন এমপিদের ভাগ করে দেয়া হয়েছে। ৩নং ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে রূপগঞ্জের মন্ত্রীকে। তারা সেখানে প্রভাব বিস্তার করবেন। এভাবে শহরে বহিরাগত দিয়ে ভরে গেছে। ভোটের দিন তাদের কোনো কাজ নেই। তারা যেন ভোটের দিন চলাফেরা করতে না পারেন। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) রাত ১০টায় নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন।

তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, ‘আমি ন্যায়বিচার পাচ্ছি না। রাত ১০টায় নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা আমার বাড়িতে হাজির হয়েছেন। তারা হয়রানির বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে এখানে এসেছেন। প্রথম থেকে আমরা আশা করেছিলাম, নির্বাচনটা কোনো রকমের হস্তক্ষেপ ছাড়া জনগণের রায় আমাদের শিরোধার্য হবে।’

তিনি বলেন, ‘আপনাদের মাধ্যমেই আমি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। একটা মেয়ে আছে, যার বাবা আমাকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছিল। সে মেয়েটার স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্বপন নামের একটা ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে। মহানগর যুবদলের নেতা জোসেফের বাড়িতে পুলিশি আক্রমণ করা হয়েছে। আমি বিভিন্ন জায়গা থেকে খবর পাচ্ছি, অনেকের বাড়িতে পুলিশ যাচ্ছে।’

মেয়রপ্রার্থী তৈমূর বলেন, নির্বাচন কমিশনার রফিকুল যেদিন নারায়ণগঞ্জে এসেছিলাম, সেদিন তাকে বলেছিলাম আমি যখন ভোট চাই, তখন তারা আমাকে জিজ্ঞেস করে আমরা ভোট দিতে পারবো কি না, আর আপনি বসে যাবেন কি না? আমার বসে যাওয়ার এখন কোনো কারণ নেই। আমি দলের প্রার্থী না এখন। আমি স্বতন্ত্রপ্রার্থী, আমার জবাবদিহিতা জনগণের কাছে। নির্বাচন কমিশনার বলেছিল আপনারা নিশ্চিন্তে থাকেন, ভোট সুষ্ঠু হবে।

তিনি আরও বলেন, বন্দরে আমার শোডাউনে কোনো বহিরাগত লোক ছিলেন না। তারা সবাই সিটির ভোটার। নদীর পশ্চিম পাড়ে আমার প্রতিদ্বন্দ্বি যে পথসভা করেছেন, সেখানে সম্মানিত মেহমানরা নেতৃত্ব দিয়েছেন। আমরা এখন কঠিন অবস্থায় পড়ে গেছি।

তৈমূর বলেন, প্রতিটি স্কুলে ডিজিটাল সিস্টেম আছে। প্রশাসন থেকে নির্দেশ দেয়া হচ্ছে, সিসি ক্যামেরাগুলো তুলে নেয়ার জন্য। এটার কী মানে দাঁড়ায়? এটা আপনারা বিবেচনা করবেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরবেন। পুলিশি নির্যাতন চালানোর জন্য তারা এই সিসি ক্যামেরা তুলে ফেলার চেষ্টা করছেন। আপনারা যাচাই করে দেখবেন। সকলের কাছে আমার অনুরোধ সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচনের স্বার্থে আপনারা এই সিসি ক্যামেরাগুলো রাখার ব্যবস্থা করবেন।

তিনি বলেন, অপারেটররা যেন আমাদের এজেন্টদের ছাড়া মেশিন মেরামত না করতে পারে। এটা যেন এজেন্টদের স্থানে করা হয়। এটা আমার অনুরোধ থাকবে। এজেন্টদের যেন বের করে দেয়া না হয়।

তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, আমাদের ভয়ভীতি দেখানোর জন্য এসব করা হচ্ছে। বিগত ১৫ বছর ধরে মামলায় জর্জরিত হয়ে আমরা অভ্যস্ত হয়ে গেছি। এ অবস্থায় আপনাদের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। একটি মেয়র পদের জন্য আপনার পদ আসবেও না, যাবেও না। একটা সুষ্ঠু নির্বাচন নারায়ণগঞ্জে হলে এর সুনাম আপনি বহন করবেন। তা না হলে এর দায় দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে এবং আপনার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে।

  নাসিক নির্বাচন

কুষ্টিয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে ছেলের হাতে বাবা খুন হয়েছে। শুক্রবার (২০ মে) সকাল ৬টার দিকে কুষ্টিয়া পৌরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের চর মিলপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাবার নাম বাবু হোসেন (৪২)। তিনি কুষ্টিয়া শহরের চর মিলপাড়া এলাকার মকবুল হোসেনের ছেলে। তিনি ঢাকায় ফেরি করে খেলনা বিক্রি করতেন। ঢাকা থেকে দুদিন আগে বাড়ি এসেছেন বাবু। অভিযুক্ত রমিজ হোসেন (১৮) নিহত বাবুর দ্বিতীয় ছেলে। তিনি একটি পাটকলের মিলে শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।

নিহতের স্বজনরা জানান, নিহত বাবু দুদিন আগে বাড়িতে এসেছেন। বাড়িতে এসে ছেলের কাছে টাকা চেয়েছেন। কারণ ছেলে পাটকল কারখানায় কাজ করে অর্থ উপার্জন করেন। কিন্তু ছেলে তাতে রাজি না। এ নিয়ে ঝগড়া চলছিল দুদিন ধরে। এ নিয়ে আজ শুক্রবার সকালে ছেলে তার বাবার মাথায় বাঁশ দিয়ে আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম জানান, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুদিন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাবু ও তার ছেলে রমিজের মধ্যে ঝগড়া চলে আসছিল। শুক্রবার সকালে দুজনের মধ্যে এ নিয়ে কথা-কাটাকাটি ও তুমুল ঝগড়া চলছিল। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে ছেলে বাঁশ দিয়ে আঘাত করলে বাবা গুরুতর আহত হন। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুষ্টিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অপরাধীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি বলেও জানান ওসি।

  নাসিক নির্বাচন

;

দৌলতদিয়া ফে‌রিঘাট এখন পানির নিচে!



সোহেল মিয়া, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

হঠাৎ করে পদ্মা নদী‌র পা‌নি বৃ‌দ্ধির কার‌ণে রাজবাড়ীর দৌলত‌দিয়া ফেরঘাট এখন পা‌নির নি‌চে। পানি বৃ‌দ্ধির কার‌ণে তলি‌য়ে গে‌ছে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তের ব্যস্ততম ৫নং ফেরিঘাট। দুর্ঘটনা এড়া‌তে এই ঘাট দি‌য়ে যানবাহন পারাপার বন্ধ রেখেছে ঘাট কর্তৃপক্ষ। ফ‌লে দৌলতদিয়া প্রা‌ন্তে তীব্র ঘাট সংকট শুরু হ‌য়ে‌ছে। বর্তমা‌নে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তের ৭‌টি ঘা‌টের ম‌ধ্যে ৩‌টি ঘাট সচল র‌য়ে‌ছে। ঘাট সংক‌টের কার‌ণে দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তে তীব্র ভোগা‌ন্তি সৃ‌ষ্টি হ‌য়ে‌ছে।

শুক্রবার (২০ মে) সকালে দৌলতদিয়া ফে‌রিঘা‌টে দেখা যায়, দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তের ৫নং ফে‌রিঘাট পা‌নি‌তে ত‌লি‌য়ে র‌য়ে‌ছে। অ‌নেক যাত্রী ঘা‌টে এ‌সে ফি‌রে যা‌চ্ছেন। জি‌রো প‌য়েন্ট থে‌কে ঢাকা খুলনা মহাসড়‌কে ফে‌রি পা‌রের অ‌পেক্ষায় র‌য়ে‌ছে সাত শতা‌ধিক যানবাহন। যানবাহনগু‌লোর ম‌ধ্যে শত শত যাত্রীবাহী বাস র‌য়ে‌ছে। মধ্যরাতে ফে‌রিঘা‌টে আসা বাসগু‌লো এখন পর্যন্ত ফে‌রি‌তে উঠতে পা‌রে‌নি। দীর্ঘ সময় ফে‌রি পা‌রের অ‌পেক্ষায় থে‌কে চরম ভোগা‌ন্তি পোহা‌তে হ‌চ্ছে যাত্রীদের। ট্রাক ও কাভার্ড
ভ্যানগু‌লোর ভোগা‌ন্তি দু’দিন পর্যন্ত।

যাত্রী ও চাল‌কেরা ক্ষোভ প্রকাশ ক‌রে ব‌লেন, শোনা যায় দৌলত‌দিয়া প্রা‌ন্তে সাত‌টি ঘাট। এখন তো দুই‌টি ঘাট সচল র‌য়ে‌ছে। মানুষ এস‌ব ভোগা‌ন্তির জবাব সু‌যোগ পে‌লে দে‌বে। ঘণ্টার পর ঘণ্টা বৃ‌ষ্টির ম‌ধ্যে বা‌সের ম‌ধ্যে। খাওয়া নাই, কখন ঢাকায় পৌঁছা‌তে পার‌বো তার ঠিক নেই।

বিআইডব্লিউ‌টি‌সির দৌলত‌দিয়া ফে‌রিঘা‌টের ব্যবস্থাপক মো.শিহাব উদ্দীন ব‌লেন, বর্তমা‌নে এ রু‌টে যাত্রী ও যানবাহন পারাপা‌রে ১৯‌টি ফে‌রি চলাচল কর‌ছে। ঘাট সংক‌টের কার‌ণে আমা‌দের ফে‌রি চলাচল বিঘ্ন হ‌চ্ছে।

  নাসিক নির্বাচন

;

বাড়তি দামেই চাল, কমেছে পেঁয়াজ-সবজির দাম



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বোরো মৌসুমেও কমেনি চালের দাম। গত এক সপ্তাহে রাজধানীর বাজারে দুই থেকে পাঁচ টাকা বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। এদিকে গত সপ্তাহে খুচরা পর্যায়ে পেঁয়াজের কেজি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা বিক্রি করা হলেও দাম কমে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা কেজি বিক্রি করতে দেখা গেছে।

শুক্রবার (২০ মে) রাজধানীর বাজারে চালের দাম কেজিতে দুই থেকে পাঁচ টাকা বেড়েছে। সরু চাল বা মিনিকেট ৬৫ থেকে ৬৮ টাকা, নাজিরশাইল ৭৫ টাকা, ব্রি-২৮, পাইজাম ও মোটা চাল ৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহে খুচরা পর্যায়ে পেঁয়াজের কেজি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা বিক্রি করা হলেও বৃহস্পতিবার কমে ৩৫ থেকেস ৪০ টাকা কেজি বিক্রি করতে দেখা গেছে। আর পাইকারি বাজারে পাল্লা ১৮০ থেকে ১৯০ টাকা বিক্রি করছেন পাইকারি ব্যবসায়ীরা। তবে রসুনের দাম বেড়ে ১৪০ টাকা কেজি থেকে ১৬০ টাকা কেজি বিক্রি করা হচ্ছে। আর আদা ১০০ থেকে ১২০ টাকা কেজি।

বাজারে করলা, পটল, ঢেড়স, ধুন্দুলসহ প্রায় সবজি ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি বিক্রি করা হচ্ছে। এছাড়া বটবটি ৬০ টাকা কেজি, বেগুণ ৫০ থেকে ৬০ কেজি, মরিচ ৬০ থেকে ৭০ টাকা ও লেবুর ডজন ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, প্রতি পিস লাউ ৪০ থেকে ৬০ টাকা, লাল শাকের আঁটি ৭ থেকে ১০ টাকা বিক্রি করা হচ্ছে।

এদিকে রুই ও কাতল মাছ ২৩০ থেকে ৪৫০ টাকা কেজি, চিংড়ি ৪৫০ থেকে ১২০০ টাকা, বোয়াল ৭০০ থেকে ৯০০ টাকা, ইলিশ ৯০০ থেকে ১৪০০ টাকা, শিং ৪০০ থেকে ৭০০, কাচকি ৩০০ টাকা কেজি বিক্রি হতে দেখা গেছে। তবে ঈদের পর হঠাৎ করে ডিমের দাম বাড়লেও তা কমছে না। ডজন ১২০ টাকা ডজন বিক্রি করা হচ্ছে।

বাজারে নতুন রেটের তেল প্রায় দোকানে বিক্রি হতে দেখা গেছে। ৫ লিটার রূপচাঁদা ৯৮০ টাকা, লিটার ১৯৮ টাকা বিক্রি করা হচ্ছে। আগের দামেই ৮০ টাকা কেজি চিনি, ১০০ থেকে ১৩০ টাকা ডাল বিক্রি করা হচ্ছে।

  নাসিক নির্বাচন

;

কুষ্টিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাস যাত্রীর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় শ্যামলী পরিবহনের সাথে ক্রেন গাড়ির (ট্রাকের সাথে সংযুক্ত) মুখোমুখি সংঘর্ষে মো. শাহাবুদ্দিন (২৩) নামে এক শ্যামলী পরিবহনের যাত্রী নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে ভেড়ামারা উপজেলার দশ মাইল নামকস্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত মো. শাহাবুদ্দিন মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার রাধা গোবিন্দপুর ধলা এলাকার সাইদুল ইসলামের ছেলে।

ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মুজিবুর রহমান জানান, রাতে কুষ্টিয়া হতে ঢাকাগামী শ্যামলী পরিবহন (শ্যামলী এন আর ট্রাভেলস কোচ নাম্বার ঢাকা মেট্রো ব- ১৪- ৫৭৫৩) দশ মাইল আনিসের ইটভাটার সামনের বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সাথে থাকা এস্কেভেটর সাথে ধাক্কা লাগে। এসময় শ্যামলী পরিবহনের যাত্রী গুরুতর আহত হয়। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

  নাসিক নির্বাচন

;