কাকাকে অভিনন্দন জানাচ্ছি, উনার মেয়ে জিতেছে: আইভী

  নাসিক নির্বাচন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
হ্যাটট্রিক জয়ের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে হাস্যোজ্জ্বল আইভী। ছবি: বার্তা২৪.কম

হ্যাটট্রিক জয়ের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংয়ে হাস্যোজ্জ্বল আইভী। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে বেসরকারি ফলাফলে জয়ী আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‌‘আমি অবশ্যই আমার কাকা তৈমূর আলম খন্দকারকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করব।’

আইভী বলেন, ‘কাকা অনেক ভোট পেয়েছেন, তাকে অভিনন্দন জানাতে চাচ্ছি। আপনার মেয়ে জিতেছে। মেয়ে তো জিতবেই, বাবারা সব সময় মেয়েদের জিতিয়ে দেয়। তিনি যেহেতু আমার চাচা, তিনিও খুশি হয়েছে যে, চুনকার মেয়ে জিতেছে, উনারই মেয়ে জিতেছে।’

তিনি বলেন, ‘কাকা আগেও আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। আবার অনেক সময় অনেক সমালোচনা করেছেন, অনেক কথা বলেছেন। তবে আমি উনাকে সব সময় সম্মান করি, শ্রদ্ধা করি।’

রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে বেসরকারি ফলাফলে জয় নিশ্চিতের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন সেলিনা হায়াৎ আইভী। এসময় তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচনী প্রচারে তৈমূর আলম খন্দকার যেসব পরিকল্পনা তুলে ধরেছেন, সেগুলো বিবেচনায় নেওয়ার কথা উল্লেখ করে আইভী বলেন, ‘আমি উনার সঙ্গে কথা বলব, আগেও কথা হতো। তার উন্নয়ন পরিকল্পনার অনেক কিছুই আমার পরিকল্পনার মধ্যেও রয়েছে।’

সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ‘আমি এ শহরেই থাকতে চাই। জীবনের শেষ সময় পর্যন্ত মানুষের পাশে থাকতে চাই। জীবনের শেষ দিনটি পর্যন্ত মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। নারায়ণগঞ্জ মানুষের জন্য, নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য। তারা যেমন আমার বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছেন, আমিও তাদের পাশে থাকতে চাই।’

তিনি বলেন, ‘কোনো ভয় ও শঙ্কা কাজ করেনি। আমার কনফিডেন্স দেখে অনেকে মনে করেছিলেন, আমি ওভার কনফিডেন্স। কনফিডেন্সে না থাকলে নেতাকর্মীরা মন মরা হয়ে যায়। আমি ছোটবেলা থেকেই দেখে আসছি। আব্বাও এ শহরে কাজ করেছেন। আমি জানতাম, তারা আমাকে বিমুখ করবে না। ভোট স্লো হয়েছে, হয়তো আরও ভোট পড়লে ব্যবধানটা আরও বড় হতো।’

তিনি বলেন, ‘আমি নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ দিতে চাই। তারা এত বেশি সক্রিয় ছিলেন, যার ফলে কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আমি আপনাদের কাছে ঋণী। আমার জন্য দোয়া করবেন। যে প্রত্যাশা নিয়ে মানুষ ভোট দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নৌকা দিয়েছে সেটা যেন পূরণ করতে পারি।’

সিটি করপোরেশনের উন্নয়নে এমপি শামীম ওসমানকে সঙ্গে রাখবেন কি না, এমন প্রশ্নে আইভী বলেন, ‘যে কেউ আমার সাথে উন্নয়নে অংশ নিতে পারেন। সবার কথাই আমি গ্রহণ করব। প্রত্যাশা অনেক বেশি। মানুষ যেই প্রত্যাশা রাখে, সেগুলো পূরণ করব। আর চ্যালেঞ্জ থাকবেই, আগেও মোকাবিলা করেছি, আগামীতেও করব।’

বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী (নৌকা) পেয়েছে ১ লাখ ৬১ হাজার ২৭৩ ভোট। তার নিকট প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির অব্যাহতিপ্রাপ্ত নেতা তৈমূর আলম খন্দকার (হাতি) পেয়েছেন ৯২ হাজার ১৭১ ভোট।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, ভোট পড়েছে প্রায় ৫০ শতাংশ। সকাল থেকেই ভোটের পরিবেশ নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন প্রার্থীরা। কোথাও সহিংসতার কোনো ঘটনা ঘটেনি।

  নাসিক নির্বাচন

সর্বস্তরের শ্রদ্ধার জন্য আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ শহীদ মিনারে



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে।

শনিবার (২৮ মে) দুপুর ১টায় বরেণ্য এই সাংবাদিকের মরদেহ আনা হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। পরে দুপুর ১টা ১৩ মিনিটে তার মরদেহে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে আবদুল গাফফার চৌধুরীর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৪টার দিকে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তার মরদেহ জাতীয় প্রেসক্লাবে নিয়ে যাওয়া হবে।

এরপর বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের উদ্দেশে আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। পরে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তাকে সমাহিত করা হবে।

এদিকে, আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরীর দাফনকাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য সরকারের বিভিন্ন দফতর ও সংস্থার সঙ্গে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট ও জাতীয় প্রেসক্লাব সার্বিক সহযোগিতা করছে।

এর আগে শনিবার (২৮ মে) বেলা ১১টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় আবদুল গাফফার চৌধুরীর মরদেহ।

মহান একুশের অমর সংগীতের রচয়িতা আবদুল গাফ্‌ফার চৌধুরী গত ১৯ মে লন্ডনের বার্নেট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৮৮ বছর। পরিবারের ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে, তিনি বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগছিলেন।

  নাসিক নির্বাচন

;

বগুড়ায় গর্তের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ার শেরপুরে গর্তের পানিতে পড়ে আব্দুল্লাহ হোসেন (৩) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২৮ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় শেরপুর উপজেলার ভাটরা উত্তর পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আব্দুল্লাহ খানপুর ইউনিয়নের ভাটরা উত্তর পাড়া গ্রামের ভ্যানচালক আলমগীর হোসেনের ছেলে।

আব্দুল্লাহর মা খাদিজা খাতুন জানান, আব্দুল্লাহর বাবা সকালে খাওয়া দাওয়া শেষ করে ভ্যান নিয়ে বাইরে চলে যায় । আমি বাড়ির ভিতরে কাজ করছিলাম। আব্দুল্লাহ বাড়ির পাশে খেলাধুলা করছিল। দীর্ঘ সময় আব্দুল্লাহকে দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে বাড়ির পাশে গর্তের পানিতে তার জুতা ভাসতে দেখা যায়। পরে গর্তের পানি থেকে আব্দুল্লাহর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুস সালাম জানান, পরিবারের অভিযোগ না থাকায় মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। থানায় একটি ইউডি মামলা করা হয়েছে।

  নাসিক নির্বাচন

;

বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যুবককে কুপিয়ে হত্যা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
পীরগাছা থানা

পীরগাছা থানা

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরের পীরগাছায় দেলোয়ার হোসেন (৩৫) নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার (২৮ মে) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন পীরগাছা থানার ওসি সরেস চন্দ্র। এর আগে শুক্রবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার কুড়ারপার ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দেলোয়ার হোসেন পীরগাছা সদর ইউনিয়নের কসাইটারী গ্রামের ছফুর উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সন্ধ্যার পর স্থানীয় বাজার থেকে বাড়িতে যান দেলোয়ার হোসেন। রাত ১১টার দিকে প্রতিবেশী ফারুক নামে এক যুবক তাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে তারা কুড়ারপার ব্রিজ এলাকায় রেল লাইনের কাছে পৌঁছালে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা দেলোয়ারকে কোপাতে থাকেন। এ সময় দেলোয়ারের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন ছুটে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় রাতেই প্রতিবেশী সবুজ নামে এক যুবকসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

পীরগাছা থানার ওসি সরেস চন্দ্র বলেন, দেলোয়ার নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। বর্তমানে তার মরদেহ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

  নাসিক নির্বাচন

;

সিরাজগঞ্জে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে গৃহবধূ আটক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
সিরাজগঞ্জে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে গৃহবধূ আটক

সিরাজগঞ্জে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে গৃহবধূ আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

সিরাজগঞ্জে একটি বাসায় ১১ বছর বয়সী এক গৃহকর্মীকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় জুথি খাতুন নামে এক গৃহবধূকে আটক করেছে পুলিশ।

লিপি খাতুন কুড়িগ্রাম জেলার কচাকাটা উপজেলার পূর্বকেদার গ্রামের বাচ্চু মিয়া ও আমিনা খাতুন দম্পতির মেয়ে।

শুক্রবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার সয়াধানগড়া মধ্যপাড়া গ্রামে এঘটনা ঘটে। আটক জুথি খাতুন সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার সয়াধানগড়া মধ্যপাড়া গ্রামের তারেক গোলামের স্ত্রী।

শনিবার (২৮ মে) সিরাজগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তদন্ত মো. সাজ্জাদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মৃত হযরত আলীর ছেলে মো. আলি আজাহারের বাড়িতে লিপি খাতুন গত তিন বছর যাবৎ কাজ করে। প্রত্যেক দিন শিশুটিকে নির্যাতন করে গৃহবধূ জুথি খাতুন। যে কাজ বয়স্ক মানুষকে দিয়ে করানো উচিত, তা চাপিয়ে দেওয়া হতো লিপির ওপর।

এলাকাবাসী শুক্রবার এঘটনাটি পুলিশকে অবগত করলে পুলিশ এসে লিপিকে উদ্ধার করে।

লিপি জানান, বিভিন্ন সময়ে লাঠি, গরম ইস্ত্রি দিয়ে ছ্যাকা ও কিল ঘুষি মারতো। আমি কাউকে কিছুই বলতে পারি না। কাউকে কিছু বললে আমাকে নানা ভাবে মেরে ফেলার হুমকি দিতো খালাম্মা।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, ইতিমধ্যে নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে পুলিশ উদ্ধার করেছে। শুক্রবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার দেওয়া হয়েছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নির্যাতিত শিশুটির পরিবার থানায় অভিযোগ করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে গৃহবধূর নামে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। সেই মামলায় জুথি খাতুনকে আটক করা হয়েছে।

  নাসিক নির্বাচন

;